আদমদীঘিতে জোরপূর্বক স্কুল ছাত্রীর পর্নোছবি মোবাইলে ধারনে তিন বখাটেদের বিরুদ্ধে মামালা ।

0
136
Print Friendly, PDF & Email

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলা প্রত্যন্ত পল্লীতে এক স্কুল ছাত্রীকে ভয়ভীতি দেখিয়ে নির্জন স্থানে নিয়ে জোরপূর্বক বিবস্ত্র করে পর্নো ছবি মোবাইল ফোনে ধারণ করে তা প্রদর্শন ও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকিতে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করার ঘটনায় অবশেষে গত রোববার রাতে আদমদীঘি থানায় তিন বখাটেদের বিরুদ্ধে ভিকটিমের বাবা বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।
জানা গেছে, গত ১৩ জুলাই সন্ধ্যার পূর্বে একই গ্রামের ৯ম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে জোরপূর্বক রাস্তা থেকে আটক করে বাড়ির পাশে কলা বাগানে নিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে বিবস্ত্র করে পর্নো ছবি তাদের মোবাইল ফোনে ধারণ করে। এরপর ধারণকৃত নগ্ন ছবি তাদের বন্ধু পাশের মিতইল গ্রামের প্রসজিৎ (২১) এর মোবাইল ফোনে পার করে দেয়। পরে প্রসজিৎ সহ আরো ২ বখাটে যুবকরা ওই ছাত্রীর বাবার কাছ থেকে ৪০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দিলে তার মেয়ের পর্নো ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দিবে বলে হুমকি দেয়। এ ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে ওই রাতে মিতইল গ্রামের সাবেক ইউপি মেম্বারে বাড়িতে বিষয়টি ধামাচাপা দিতে একটি মহল বৈঠক করে। কিন্তু ওই বৈঠকে কোন সুরাহা না হওয়ায় পরদিন বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে এ সংক্রান্ত খবর প্রকাশিত হলে প্রশাসনের টনক নড়ে। এরপর গত রোববার রাতে ওই ছাত্রীর অভিভাবকদের থানায় নিয়ে একটি লিখিত এজাহার গ্রহণ ও মোবাইল ফোনে ধারণ করা নগ্ন ছবির ভিডিও চিত্র জব্দ করেন। এ ব্যাপারে আদমদীঘি থানার কর্মকর্তা ইনর্চাজ তোজাম্মেল হক জানান বখাটেদের বিরুদ্ধে জরুরি ভিত্তিতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

শেয়ার করুন