ইনডিপেন্ডেন্ট টিভির সাংবাদিক লাঞ্ছিত, এমপি রনির বিরুদ্ধে মামলা

0
66
Print Friendly, PDF & Email

পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে বেসরকারি টেলিভিশন ইনডিপেনডেন্টের দুই সাংবাদিক এমপি গোলাম মাওলা রনির অফিসে লাঞ্ছিত হয়েছেন। তারা হলেন ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের অপরাধবিষয়ক অনুষ্ঠান ‘তালাশ’-এর রিপোর্টার ইমতিয়াজ সানি ও ক্যামেরাম্যান মহসিন মুকুল। মুকুলকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
 
এ ব্যাপারে গোলাম মাওলা রনির বিরুদ্ধে শাহবাগ থানায় মামলা করেছে টেলিভিশন কর্তৃপক্ষ। নাম্বার ৪১। এতে রনির বিরুদ্ধে দুই সাংবাদিককে হত্যাচেষ্টা, মারধর ও ক্যামেরা ভাঙচুরের অভিযোগ আনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শাহবাগ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এম এ জলিল।
 
পুলিশ জানায়, গতকাল বিকালে ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের সহকারী ব্যবস্থাপক ইউনুছ আলী মামলাটি দায়ের করেন। এতে এমপি রনিসহ অজ্ঞাতপরিচয় ১৫-২০ জনকে আসামি করা হয়েছে।
 
জানা গেছে, গতকাল দুপুরে সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনি তার অফিসে প্রবেশকালে ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের সাংবাদিকদের দেখে তাকে কয়েক দিন ধরে অনুসরণ করার কারণ জানতে চান। সাংবাদিকরা বলেন, তারা পেশাগত দায়িত্ব পালন করছেন। এ নিয়ে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে এমপি সমর্থকরা সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালান। এতে ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের রিপোর্টার ও ক্যামেরাম্যান আহত হন। এ খবর জানার পর সেখানে ছুটে যান সাংবাদিক নেতারা। আহত সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ওমর ফারুক, সাধারণ সম্পাদক শাবান মাহমুদ ও ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি শাহেদ চৌধুরী এমপি রনির সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠক করেন। একপর্যায়ে পুরো ঘটনার জন্য এমপি রনি সাংবাদিকদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেন এবং উভয় পক্ষের মধ্যে মীমাংসা হয়। তবে সাংবাদিক নেতাদের মধ্যস্থতায় মীমাংসা মেনে নিলেও পরে রাজধানীর শাহবাগ থানায় ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের পক্ষে মামলা করা হয়।
 
এদিকে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক বিবৃতিতে ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন সাংবাদিকদের ওপর হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। অন্য এক বিবৃতিতে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি শাহেদ চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান নিন্দা জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন