সরকার সমঝোতায় না এলে করুণ পরিণতির শিকার হবে

0
42
Print Friendly, PDF & Email

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন সরকার সমঝোতায় না এলে করুণ পরিণতির শিকার হবে বলে।
 
তিনি আজ জাতীয় সংসদের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত বিরোধী দলের এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন। সদ্য সমাপ্ত বাজেট অধিবেশনের ওপর দলীয় পর্যালোচনা ও মূল্যায়ন প্রকাশের জন্য এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে বিএনপি।
 
সংবাদ সম্মেলনে ব্যারিস্টার মওদুদ বলেন,“সমঝোতার পথ ছেড়ে সহিংসতার পথ বেছে নিলে, বিএনপি ও ১৮ দলীয় জোট খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে সরকারকে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা পুনর্বহালে বাধ্য করবে। সেক্ষেত্রে বর্তমান সরকারের পরিণতি হবে আরও করুণ।”
 
তিনি বলেন, “চূড়ান্ত সংঘাত এড়ানোর লক্ষ্যে আমরা এখনও আশা করি, সরকার এ সংসদ ভেঙে দেওয়ার আগেই নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন করার উদ্যোগ নেবে। বিএনপিও এ ব্যাপারে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করবে। এতে দেশ ও জাতির মঙ্গল হবে।”
 
পাশাপাশি বিএনপি কোনো দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে অংশ নেবে না বলেও উল্লেখ করেন মওদুদ আহমেদ।
 
এ সময় সদ্য সমাপ্ত অধিবেশনের কার্যক্রমে বিরোধী দলকে নানাভাবে বৈষমের শিকার হতে হয়েছে বলে উল্লেখ করেন মওদুদ আহমেদ।
 
মওদুদ বলেন, “আমরা সংসদে বিভিন্নভাবে বৈষম্যের শিকার হয়েছি। পয়েন্ট অফ অর্ডারে স্পিকার বিএনপির একজনের বিপরীতে সরকারি দলের তিনজনকে বক্তব্য দেয়ার সুযোগ দিয়েছে।”
 
বিএনপির ১০ মিনিটে স্থলে সরকারি দলের সংসদ সদস্যদের ৫০ মিনিট পর্যন্তও সময় দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন মওদুদ আহমেদ।
 
এছাড়া সরকারি দলের কয়েকজন মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য কর্তৃক সংসদে জিয়াউর রহমান ,খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ অশালীন বক্তব্য প্রদানের তীব্র নিন্দা জানান মওদুদ।
 
মওদুদ দাবি করেন, সরকারি দলের কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য ও অপসংস্কৃতি চর্চার কারণেই সংসদ বর্জনে বাধ্য হয়েছে বিরোধী দল।
 

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার,  শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, আবুল খায়ের ভূঁইয়া, রেহেনা আক্তার রানু, শাম্মী আক্তার, আশিফা আশরাফী পাপিয়া প্রমুখ।

শেয়ার করুন