শাহবাগের সংঘর্ষ ঢাবি ক্যাম্পাসে, ভিসির বাসায় হামলা, প্রক্টর অফিস ভাঙচুর

0
97
Print Friendly, PDF & Email

বিসিএস সহ সব সরকারি চাকরিতে কোটা প্রথা বাতিলের দাবিতে শাহবাগে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষ চলছে। আন্দোলনকারীদের মিছিলে পুলিশ ব্যাপক লাঠিচার্জ ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করেছে।আজ সকাল ১১টায় আন্দোলনকারীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি থেকে শাহবাগের দিকে রওয়ানা হয়। পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙ্গে শাহবাগে আসতে চাইলে পুলিশ তাদের ওপর লাঠিচার্জ করে। পুলিশ আন্দোলনকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে প্রথমে লাঠিপেটা করে। পুলিশ এসময় টিয়ার শেল ছুড়ে। রাস্তায় আগুন জ্বালিয়ে আন্দোলনকারীরা বিক্ষোভের চেষ্টা করলে পুলিশের সঙ্গে আন্দোলনকারীদের সংঘর্ষ বেঁধে যায়। বিক্ষোভ থেকে প্রায় ১০ জনকে আটক করছে পুলিশ।

এদিকে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসায় আক্রমণ করেছে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। তারা প্রক্টর অফিস ভাঙচুর করে। ছাত্রলীগ কর্মীরাও আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। সহস্রাধিক আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মল চত্বরে অবস্থান করছেন। কাছেই অপরাজেয় বাংলার সামনে ২০-৩০জন ছাত্রলীগ কর্মী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অবস্থান নিয়েছেন। যে কোন মুহূর্তে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার আশঙ্কার রয়েছে বলে জানা গেছে। ক্যাম্পাসে আতঙ্ক বিরাজ করছে।গতকাল আন্দোলনের মুখে সরকারি কর্মকমিশন (পিএসসি) ৩৪তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি ফল পুনর্বিবেচনার সিদ্ধান্ত নেয়ার পরও আজ সকালে আন্দোলনকারীরা শাহাবাগে জড়ো হতে চেষ্টা করে। এখনও শিক্ষার্থীরা টিএসসি এবং সেন্ট্রাল লাইব্রেরির সামনে অবস্থান নিয়ে স্লোগান দিচ্ছে।উল্লেখ্য, গত ২৪ মে ৩৪তম বিসিএস-এর প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এক লাখ ৯৫ হাজার পরীক্ষার্থী এতে অংশ নেন। গত সোমবার এই পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয় এবং মোট ১২ হাজার ৩৩ জন উত্তীর্ণ হন। কিন্তু এই ফলাফল প্রত্যাখান করে কোটা পদ্ধতি বাতিলের দাবি নিয়ে আন্দোলনকারীরা শাহবাগে জড়ো হচ্ছেন।

শেয়ার করুন