জনগণের রায়কে অভিনন্দন : আজমত

0
74
Print Friendly, PDF & Email

জনতার রায়কে অভিনন্দন জানালেন গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নেওয়া আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দল সমর্থিত মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট আজমত উল্লাহ খান। বিপুল ব্যবধানে পরাজিত হলেও এ বিষয়ে কোনো ক্ষোভ বা অভিযোগ নেই তার। নির্বাচিত মেয়র অধ্যাপক এম এ মান্নানকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করবেন; গাজীপুরকে আধুনিক নগর গড়ার ক্ষেত্রে দেবেন সহযোগিতা- এমনই অভিমত ব্যক্ত করলেন অন্যতম মেয়র প্রার্থী আজমত উল্লাহ। সাবেক এই পৌর মেয়র বলেন, ‘একটি আধুনিক শহরে রূপ দেওয়ার লক্ষ্যে গাজীপুরকে সিটি করপোরেশন হিসেবে ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর পর দুটি পৌরসভা ও ছয়টি ইউনিয়ন ভেঙে ৩৩০ বর্গকিলোমিটার আয়তনজুড়ে ৫৭টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত হয় গাজীপুর সিটি করপোরেশন। তবে এটি বাস্তবায়ন করতে গিয়ে গাজীপুরবাসীকে পেরোতে হয়েছে অনেক ঘাত-প্রতিঘাত। গাজীপুরকে সিটি করপোরেশনে রূপান্তরের পেছনে অনেকেরই অবদান আছে। তাই এটিকে আধুনিক নগরে পরিণত করার প্রত্যাশা থাকবে আমাদের প্রত্যেকেরই।’

৬ জুলাই অনুষ্ঠিত হয় গাজীপুর সিটি নির্বাচনের ভোট গ্রহণ। নির্বাচনে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দল সমর্থিত মেয়র প্রার্থী অধ্যাপক এম এ মান্নানের কাছে ১ লাখ ৬ হাজার ৫৭৭ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন আজমত উল্লাহ। খোলামেলা আলোচনায় তিনি জানান, নির্বাচনে হেরে যাওয়ায় কারও প্রতি ক্ষোভ নেই তার। তিনি বলেন, ‘আমি দীর্ঘ ১৮ বছর টঙ্গী পৌরসভার কয়েকটি নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছি। জনগণের পাশে থেকে চেষ্টা করেছি টঙ্গীকে আধুনিক রূপ দেওয়ার। সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করেছি নিরলস। বিদেশি দাতা সংস্থার সহযোগিতা নিয়ে অব্যাহত রেখেছি উন্নয়নের ধারা। সিটি নির্বাচনে জনগণ যা ভালো মনে করেছে তা-ই হয়েছে। জনগণই সব ক্ষমতার উৎস। তাই জনগণের রায়কে শ্রদ্ধার সঙ্গে মেনে নিতে হবে। আবার হয়তো একটা সময় আসবে, এই জনগণই রায় দেবে আমাকে।’ যারা এই নির্বাচনে তাকে সহযোগিতা করেছেন, তাদের প্রত্যেকের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান দীর্ঘ সময়ের এ জনপ্রতিনিধি।

শেয়ার করুন