লেখা খালেদার, ড্রাফট চমৎকার

0
75
Print Friendly, PDF & Email

প্রধানমন্ত্রী ও জাতীয় সংসদ নেতা শেখ হাসিনা বলেছেন, জিএসপি সুবিধা বাতিল করার অনুরোধ জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পত্রিকায় খালেদা জিয়া নিবন্ধ লিখেছেন। এর চেয়ে দুঃখের আর লজ্জার কিছু হতে পারে না।

তবে শেখ হাসিনা আজ খালেদা জিয়ার বক্তব্যের প্রশংসা করে বলেন, ‘ড্রাফটটা চমত্কার হয়েছে। বোঝা যায় একটি টিম এই ড্রাফট করেছে…’। , ওয়াশিংটন টাইমস এ লেখা নিবন্ধ ও খালেদা জিয়ার আজকের বক্তৃতায় মিল রয়েছে।

শেখ হাসিনা যখন সংসদে ওই নিবন্ধ থেকে অংশবিশেষ পড়ে শোনাচ্ছিলেন তখন বিরোধীদলীয় নেতারা হইচই করতে থাকেন এবং নিবন্ধটি খালেদা জিয়ার নয় বলে দাবি করতে থাকেন। শেখ হাসিনা বলেন, ‘না বললে তো চলবে না। আর্টিকেলের ১২ জায়গায় আমার নাম লিখে, আমার বিরুদ্ধে কথা বলা হয়েছে। আমার বিরুদ্ধে বলেন কিন্তু দেশের মানুষের বিরুদ্ধে কেন? আপনি লিখতেই পারেন। আপনার ছেলেকে দিয়ে ২০০৪ সালে আমার ওপর গ্রেনেড হামলা করিয়েছিলেন’। 

সংসদ নেতা আরো বলেন, ‘যখন বিএনপি ক্ষমতায় ছিল ইইউতে চিংড়ি রপ্তানি বন্ধ হয়েছিল জালিয়াতির জন্য। আমরা জিএসপি রক্ষা করি। ইউরোপে চুক্তি করি। নিজে যাই। অস্ত্র ছাড়া ইইউ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ডিউটি ফি কোটা পাই। আমেরিকা ২০০৭ সাল থেকে নোটিশ দিচ্ছে। আমরা তো ঠেকিয়ে রেখেছি। আমরা শ্রমিকদের উন্নয়নে সার্বিক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। বিএনপি আমলে গার্মেন্টস শ্রমিকের বেতন ছিল ১৫০০ থেকে ১৬০০টাকা। আমরা সরকারে আসার পর গার্মেন্টস শ্রমিকের বেতন ৮২ ভাগ বৃদ্ধি করেছি। সব সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারিদের বেতন বাড়িয়েছি। বিএনপি পাঁচ বছর ক্ষমতায় ছিল। যখন আমরা ক্ষমতায় আসি তখন মূল্যস্ফীতি ছিল ১১ ভাগ, চালের দাম ৩৮ থেকে ৪০ টাকা, ৩০ লক্ষ মেটন খাদ্য ঘাটতি। আমরা এসে ২৮ টাকায় চাল দিচ্ছি, আমরা খাদ্য উত্পাদন বৃদ্ধি করেছি। এই জিএসপি বন্ধ করার জন্য বিরোধিদলীয় নেতা ওয়াশিংটন টাইমস নামে একটি পত্রিকায় লিখেন, যার মালিক ইহুদি। খালেদা জিয়া ওই নিবন্ধে সব ধরনের অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা বলেন। এটা দুঃখের কথা, লজ্জার কথা’।

শেয়ার করুন