বৃষ্টি মানেই প্রেমে পড়া

0
63
Print Friendly, PDF & Email

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে (আইসিসি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ ২৫ জনের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়েছে। শনিবার বিবিসি বাংলা রেডিওর প্রত্যুষের খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

খবরে বলা হয়, এদিন সকাল সাড়ে ৭টার খবরটি প্রচারিত হয়। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ফর বাংলাদেশ ও গ্রেটার ওয়াশিংটন ডিসি বাংলাদেশি-আমেরিকান নামের দুটি সংগঠন এ অভিযোগ দায়ের করে। তবে কবে-কখন এ অভিযোগ আনা হয় সে বিষয়ে কিছু বলা হয়নি বিবিসি রেডিওর খবরে। অভিযোগকারীদের বিরুদ্ধে কিছু বলা হয়নি এতে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, তথ্যমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী, আইন প্রতিমন্ত্রী ও পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বেলজিয়াম ভিত্তিক আন্তর্জাতিক আইন বিশেষজ্ঞ আহমেদ জিয়াউদ্দিন জানান, যারা এ অভিযোগ করেছেন তারা আসলে আইসিসির চরিত্র সম্পর্কে কিছুই জানেন না। কারণ আইসিসি একটি আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত, মানবাধিকার আদালত নয়।

তিনি বিবিসি বাংলা রেডিওকে জানান, আইসিসি যদি এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয় যে, ব্যাপারটা  পৃথিবীর জন্য গুরুতর উদ্বেগের কারণ তাহলেই কেবল আনুষ্ঠানিক তদন্তের অনুমতি দিতে পারে। বিষয়টি আমলে নেওয়ার আগে আরো অনেক ধাপ রয়েছে। এটি একটি দীর্ঘ প্রক্রিয়া।

তিনি বলেন, ‘এটা এত সহজ ব্যাপার নয় যে, দুটি সংগঠন বা ওয়াশিংটনের জনগণ একটা চিঠি পাঠিয়ে দিল আর মামলা শুরু হয়ে গেল। এ ধরনের চিন্তা হবে বড় একটি ভুল।’

আহমেদ জিয়াউদ্দিন বলেন, ‘খবরে আমি অভিযোগটির বিষয়ে পড়ে যতটুকু জানতে পেরেছি, এখানে বারবার মানবাধিকারের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। তা দেখে মনে হচ্ছে, হয় কোথাও ভুল হচ্ছে, কিংবা স্রেফ প্রচারণার জন্য এটি করা হয়েছে। হয়তো তাদের কোনো রাজনৈতিক লক্ষ্য বা উদ্দেশ্য আছে।’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে সাম্প্রতিক সময়ে এমন কোনো অপরাধ বা মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটেনি, যা আইসিসির মানদণ্ডে অপরাধ হিসেবে গণ্য হতে পারে।’

শেয়ার করুন