চাকরিতে ঢোকার বয়স বাড়াতে বিক্ষোভ

0
70
Print Friendly, PDF & Email

সরকারি চাকরিতে ঢোকার বয়স বাড়িয়ে ৩৫ বছর করার দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ হয়েছে।

সাধারণ ছাত্র পরিষদ ব্যানারে বুধবার দুপুরে মহাখালীর সরকারি তিতুমীর কলেজের সামনে শতাধিক শিক্ষার্থী মানববন্ধন করে।

বনানী থানার উপপরিদর্শক শেখ আমিনুল বাশার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, শিক্ষার্থীরা অনুমতি নিয়েই কর্মসূচি পালন করে। কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

সাধারণ ছাত্র পরিষদের সভাপতি মো. ইমতিয়াজ হোসেন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, গত বছরের ১ ফেব্রুয়ারি সংসদের তৎকালীন স্পিকার আবদুল হামিদ জনগুরুত্বপূর্ণ নোটিসের ওপর আলোচনার সময় সরকারি চাকরিতে ঢোকার বয়সসীমা ৩৫ বছর করার প্রস্তাব করেন।

“সেই প্রস্তাবের সঙ্গে একমত হয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিয়ে আমরা আন্দোলন করছি।”

বর্তমান সরকার ২০১১ সালে সরকারি চাকরিজীবীদের অবসরে যাওয়ার বয়সসীমা দুই বছর বাড়িয়ে ৫৭ থেকে ৫৯ করার পর থেকে চাকরিতে ঢোকার বয়সও বাড়ানোর দাবিতে আন্দোলন চলছে।

তবে গত ৩০ জানুয়ারি স্থানীয় সরকার মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম সংসদে জানান, সরকারি চাকরিতে ঢোকার বয়সসীমা বাড়ানোর পরিকল্পনা সরকারের আপাতত নেই।

ইমতিয়াজ বলেন, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে তারা লাগাতার অবস্থান করছেন। একইসঙ্গে এই আন্দোলনে সম্পৃক্ত করতে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তারা কর্মসূচি নিয়ে যাচ্ছেন।

মানববন্ধনে অংশ নেয়া সরকারি তিতুমীর কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের স্নাতকোত্তর শ্রেণির শিক্ষার্থী নাহিদ সুলতানা বলেন, “সরকারি চাকরিতে প্রবেশের ক্ষেত্রে আমাদের বয়সসীমা এখনো শেষ হয়ে যায়নি। তবুও বড় ভাইদের কথা ভেবে আমরা আন্দোলনে নেমেছি।”

ইমাম হোসেন নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সেশন জটের কারণে শিক্ষার্থীদের পাস করে বের হতেই অনেক সময় লাগে। দেশে সরকারি পদ কম থাকায় নিয়োগ পেতেও সময় লাগে।

“তাই আমরা আন্দোলন করতে বাধ্য হয়েছি”, বলেন তিনি।

শেয়ার করুন