প্রতিবাদরত বিরোধী এমপিদের ‘চুপ’ বললেন মুক্তি

0
83
Print Friendly, PDF & Email

সরকারি দলের সংসদ সদস্য কবিরুল হক মুক্তি বিএনপির প্রতিষ্ঠাতাকে ‘রাজাকার’ বললে বিরোধী সংসদ সদস্যরা প্রতিবাদ জানাতে থাকেন। তখন তাদের ‘চুপ’ বলে শাসান মুক্তি।

এতে পরিস্থিতি আরো উত্তপ্ত হয়ে উঠলে বুধবার রাতে সংসদ অধিবেশনে সভাপতিত্বকারী ডেপুটি স্পিকার শওকত আলীর হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

নড়াইলে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হয়ে আওয়ামী লীগে যোগ দেয়া মুক্তি বলেন, “অনেক মুক্তিযোদ্ধা বিভ্রান্ত হয়ে রাজাকার হয়ে গেছে। রাজাকাররা রাজাকারই রয়ে গেছে। জিয়াউর রহমান একজন সে রকম বিভ্রান্ত মুক্তিযোদ্ধা, তিনি রাজাকার।”

সঙ্গে সঙ্গে বিএনপির মওদুদ আহমদ, মুহম্মদ জমিরউদ্দিন সরকার, শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানি প্রতিবাদ করতে থাকেন। বিরোধী দলের নারী সদস্যরাও হৈ চৈ করতে থাকেন।

এই সময় কবিরুল হক তাদের লক্ষ্য করে ‘চুপ’ বলে শাসালে পরিস্থিতি আরো উত্তপ্ত হয়ে উঠে।

কবিরুলের বক্তব্য একপাঞ্জ না করা পর্যন্ত বিরোধী দলের সদস্যরা দাঁড়িয়ে থাকবে বলে ঘোষণা দেন বিরোধী দলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান হুইপ এ্যানি।

জমিরউদ্দিন সরকার বলেন, “মাননীয় স্পিকার আপনি একজন মুক্তিযোদ্ধা, জিয়াউর রহমানও মুক্তিযোদ্ধা। আমরা তাকে স্বাধীনতার ঘোষক বলি। একজন নতুন সদস্য তাকে রাজাকার বলেছেন। এতে মুক্তিযুদ্ধের অপমান।”

এই পরিস্থিতিতে সরকারি দলের হুইপ আ স ম ফিরোজ আসন ছেড়ে এগিয়ে যান। মুক্তিও শেষের সারি থেকে নেমে এসে এ্যানির সঙ্গে কথা বলেন।

মিনিটখানেক কথা বলে এ্যানি ফিরে বিরোধী দলের নারী সংসদ সদস্যদের শান্ত ইঙ্গিত করেন।

ডেপুটি স্পিকারও বলেন, মুক্তির বক্তব্য পরীক্ষা করে দেখা হবে।

এরপর পরিস্থিতি শান্ত হয়।

শেয়ার করুন