পরকীয়ার জন্য শুধুই লকেট!

0
149
Print Friendly, PDF & Email

ভারতীয় বাংলা ছবির নন্দিত অভিনেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায় পরকীয়ায় বেশ ভালোভাবেই জড়িয়ে পড়েছেন। সময়ের ধারাবাহিকতায় তিনি একাধিক পুরুষের সঙ্গেই পরকীয়ায় মজেছেন। কখনো তিনি বিবাহিত যুবকের হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছেন। আবার কখনো বিবাহিতা লকেট নিজেই অন্য পুরুষের সঙ্গ কামনা করেছেন। তবে এগুলো লকেটের বাস্তব জীবনে নয়। লকেটের এই পরকীয়ার ঘটনাগুলো ছবিতে ঘটেছে।

কিন্তু গল্প হলেও একটা ব্যাপার সত্যি, বছর তিনেক ধরে লকেটের বেশির ভাগ ছবির বিষয়ই পরকীয়াচর্চা। যেমন ২০১১ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত অনিমেষ রায়ের ‘স্ট্রিটলাইট’ ছবিটি। সেখানে লকেট বিবাহিতা এবং এক সন্তানের মা। কিন্তু ঘটনাক্রমে অন্যপুরুষের প্রেম জালে আবদ্ধ হয়েছেন তিনি।

আবার, লকেটের আগামী ছবি ‘বৃষ্টিভেজা রোদ্দুরে’ও তাই! এই ছবির গল্পেও লকেট একজন ডিভোর্সী স্ত্রী। তার কষ্টজর্জিত হৃদয়ে হঠাৎ করেই সুঠামদেহী এক পুরুষ প্রেমের ঢেউ তুলে দেয়। লকেটের পরকীয়াজনিত এরকম ছবির সংখ্যা অসংখ্য। ফলে, ধাঁধাটা সেই থেকেই যাচ্ছে। পরকীয়ার জন্য শুধু লকেটই কেন? আসলে পরকীয়া মানেই তো ত্রিভুজ প্রেমের গল্প।

যখনই চিত্রনাট্যের জন্য বাংলা ছবির প্রযোজক-পরিচালকরা বেছে নিচ্ছেন পরকীয়াকে; তখনই দুই নারী এবং এক পুরুষের সমীকরণ দরকার পড়ছে। এক নারী, দুই পুরুষ- এই সমীকরণে প্রেমের খেলাটা খুব কম ছবিতেই দেখা গেছে। সে কারণেই নায়ক-নায়িকা নির্বাচনের পর দরকার হচ্ছে, এমন এক অভিনেত্রী, পরকীয়ার ক্ষেত্রে বয়সের খাতিরে যিনি স্বচ্ছন্দভাবে মানিয়ে যান।

সবাইই জানে ছিটেফোঁটা ম্যাচিওরিটি না থাকলে পরকীয়া চালিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। তাই পরকীয়ায় আবদ্ধ নায়িকাকে একটু বয়সী হতেই হয়। তাই এ বয়সী নায়িকা টালিগঞ্জে এখন একজনই আছেন। তিনি লকেট চট্টোপধ্যায়। বুদ্ধিদীপ্ত অভিনয় এবং ম্যাচিওরিটি দুটোই একসঙ্গে তুলে ধরার ক্ষেত্রে লকেটের জুড়ি মেলা ভার। সে কারণেই লকেট পরকীয়ার বেড়াজালেই যেন আটকে পড়েছেন।

শেয়ার করুন