মিডিয়ায় কথা বলতে মানা রেশমার!

0
115
Print Friendly, PDF & Email

সাভারের রানা প্লাজা ধসের ধ্বংসস্তূপ থেকে ১৭ দিন পর অলৌকিকভাবে বেঁচে যাওয়া দেশ-বিদেশের মিডিয়া কাঁপানো আলোচিত রেশমা এখন তার নিজ বাড়ি দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার কশিগাড়ীতে অবস্থান করছেন।

বৃহস্পতিবার দিনগত রাত দেড়টার দিকে রেশমা একটি পাজেরো জিপে করে তার বাড়ি পৌঁছান। হোটেল ওয়েস্টিনের এক কর্মকর্তা ও দুইজন সফরসঙ্গীও রেশমার সঙ্গে রয়েছেন।

এদিকে, শুক্রবার সকালে খবর পেয়েই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাকসুদা বেগম সিদ্দিকা ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদ হোসেন এক ভ্যান পুলিশ নিয়ে রেশমার বাড়িতে ছুটে যান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসে জানিয়ে দেন, কোনো মিডিয়া রেশমার সাক্ষাৎকার নিতে পারবে না। এমনকি মিডিয়ার লোক তার সঙ্গে (রেশমা) একটি কথাও বলতে পারবেন না। শুধুমাত্র লাইভ ছবি নিতে পারবেন।

এ সময় তিনি রেশমার পরিবারের সদস্যদের সতর্ক করে দেন, যেন কোনো সাংবাদিক রেশমার সঙ্গে কথা বলতে না পারেন।
 
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাকসুদা বেগম সিদ্দিকা বলেন, “রেশমা শারীরিকভাবে অসুস্থ আছেন। তার শরীর এখনও পুরোপুরি সুস্থ হয়নি। যেহেতু রেশমার বিষয়টি আলোচিত এবং প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত গড়িয়েছে, তাই এই মুহুর্তে তার সঙ্গে কথা বলা যাবে না।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, রেশমার নিরাপত্তা নিয়ে প্রশাসন বেশ উদ্বিগ্ন। শুক্রবার বিকেলের মধ্যেই রেশমাকে ঢাকায় নিয়ে যেতে হোটেল ওয়েস্টিনের কর্মকর্তাদের বার বার চাপ প্রয়োগ করা হয়েছে।

অথচ রেশমা আরো ৫/৬ দিন তার জন্মস্থানে থাকতে চান। তাকে জোর করে ঢাকায় পাঠাতে চাইলে এক সময় তিনি কেঁদে ফেলেন।

অপরদিকে, রেশমার বাড়ি ফেরার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে দলে দলে লোকজনকে তার বাড়ির দিকে ছুটতে দেখা যায়। সবাই তাকে এক নজর দেখতে চান।

উল্লেখ্য, গত ২৪ এপ্রিল সাভারে রানা প্লাজার ধসে ১১২৯ জনের মৃত্যু হয়। ভবন ধসের ১৭তম দিনে ১০ মে ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে রেশমাকে উদ্ধার করে সেনাবাহিনীর উদ্ধারকারী দল। সুস্থ হওয়ার পর পাবলিক এরিয়া অ্যাম্বাসেডর পদে রেশমাকে চাকরি দিয়েছে পাঁচ তারকা হোটেলে ঢাকা ওয়েস্টিন।

শেয়ার করুন