পাপিয়া, রানু ও শাম্মীকে সতর্ক করলেন খালেদা জিয়া

0
100
Print Friendly, PDF & Email

সংসদে ‘অশোভন’ বক্তব্য দেওয়া থেকে বিরত থাকতে দলের তিন সংরক্ষিত নারী আসনের সদস্যকে নির্দেশ দিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়া। তিন সংসদ সদস্য হলেন- সৈয়দা আশিফা আশরাফী পাপিয়া, রেহানা আক্তান রানু ও শাম্মী আক্তার। বৃহস্পতিবার সিঙ্গাপুর থেকে খালেদা জিয়া এ সতর্কবার্তা পাঠান। চিকিৎসার জন্য বর্তমানে সিঙ্গাপুর রয়েছেন তিনি। খবর সমকালের
 
সূত্র জানায়, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া তিন সংসদ সদস্যকে বলেছেন, বিএনপি দীর্ঘদিন পর সংসদে যোগ দিয়েছে। তারা জনগণকে বোঝাতে চান, অধিবেশনে অংশ নিয়ে বিএনপি সংসদকে কার্যকর করতে চায়। তারা নিজ থেকে সংসদের পরিবেশ নষ্ট করতে চান না। খালেদা জিয়া বলেছেন, কড়া ভাষায় সরকারের গঠনমূলক সমালোচনা করবেন। কিন্তু কোনো অশোভন বা আপত্তিকর বক্তব্য দেবেন না। এমনকি বাধ্য না হলে তারা অধিবেশন কক্ষও ত্যাগ করবেন না বলে জানান তিনি।
 
সূত্র জানায়, দলীয় প্রধানের সতর্কবার্তা পেয়ে বৃহস্পতিবার বিরোধী দলের সদস্যরা সংযত ভাষায় বক্তব্য রাখেন। অবশ্য সতর্ক করে দেওয়া তিন সংসদ সদস্য কেউই বক্তব্য রাখেননি। আগামী রোববার রেহানা আক্তার রানু বক্তব্য রাখবেন। বৃহস্পতিবার নিলোফার চৌধুরী মনি তার বক্তব্যে অসংসদীয় ভাষা ব্যবহার করেছেন।
 
নবম সংসদের প্রথম অধিবেশন থেকেই বিএনপির পুরুষ এমপিদের চেয়ে বেশি নারী এমপিরা ‘ঝাঁজালো’ ও ‘অশোভন’ ভাষায় বক্তব্য দিয়ে আসছেন। ৩ জুন থেকে শুরু হওয়া চলতি বাজেট অধিবেশনের প্রথম কয়েকদিন কিছুটা সংযত থাকলেও গত সপ্তাহ থেকে আবার আগের রূপ ধারণ করেন তারা। অশালীন ভাষা নিয়ে সংসদ কয়েক দফা উত্তপ্ত হওয়ার পর অসন্তোষ প্রকাশ করে এ সপ্তাহের শুরুতে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী একটি রুলিং দেন। তিনি বলেন, অসংসদীয় ভাষা হলে তিনি মাইক বন্ধ করে দেবেন। এর আগে সরকারি দল ও বিরোধী দলের জ্যেষ্ঠ সংসদ সদস্যরা অসংসদীয় ভাষা ব্যবহার না করার বিষয়ে স্পিকারকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। তবে শেষ পর্যন্ত তা রক্ষা হয়নি।

শেয়ার করুন