নির্বাচন কমিশন সরকারপক্ষীয়: হান্নান শাহ

0
80
Print Friendly, PDF & Email

বর্তমান নির্বাচন কমিশনকে সরকারপক্ষীয় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অব.) আ স ম হান্নান শাহ। মঙ্গলবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে নাগরিক ভাবনা আয়োজিত ‘বাংলাদেশের মানবাধিকার: সংবিধান ও বাস্তবতা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করে বিএনপির এ প্রবীণ নেতা বলেন, “বর্তমান নির্বাচন কমিশন একপক্ষীয়, আর সেটি হলো সরকারপক্ষ। এই নির্বাচন কমিশনের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন করা সম্ভব নয়। তাই এই নির্বাচন কমিশনকে বাদ দিতে হবে।”

হান্নান শাহ বলেন, “প্রধানমন্ত্রীর কথা অনুযায়ী ২৫ অক্টোবর পার্লামেন্ট ভেঙে দেওয়া হবে, আর এরই মাধ্যমে অনির্বাচিত বলে গণ্য হয়ে যাবে সকল রাজনৈতিক দল। পূর্বেকার প্রতিনিধিদের কেউই আর নির্বাচিত থাকবেন না। তখন দেশের মানুষ ফুঁসে উঠলে সরকার পালানোরও পথ খুঁজে পাবে না।”

তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রসঙ্গে এম কে আনোয়ার বলেন, “এই ব্যবস্থা বাতিল করে সরকার দেশের রাজনীতিতে অগ্নিসংযোগ করেছে। তাই তাদেরই এই আগুন নেভাতে হবে। অন্যথায় দেশের মানুষ জ্বলে উঠলে সরকার আগুনে ভষ্মীভূত হয়ে যাবে।”

নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “এ চার বছরের সরকার আমলে যেসব নির্বাচন হয়েছে, তাতে হাজারের অধিক মানুষ মারা গেছেন। আর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তারা নাকি মারণাস্ত্র ব্যবহার করে না। তারা যেসব অস্ত্র ব্যবহার করে আমি সেগুলো স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হুকুম অনুযায়ী তার গায়ে ব্যবহার করে দেখতে চাই এগুলো সত্যিই মারণাস্ত্র নাকি অন্য কিছু!”

তিনি আরো বলেন, “এই সরকার নতুন নতুন ইস্যু সৃষ্টিতে ওস্তাদ। তারা একটি ঢাকতে ক্রমাগত অন্যটি সৃষ্টি করে চলেছে।”

সংগঠনের সভাপতি গুলতাজ বেগমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা রুহুল আমীন চৌধুরী প্রমুখ।

শেয়ার করুন