আলোচনার সুযোগ আছে: স্পিকার

0
65
Print Friendly, PDF & Email

মুলতবি প্রস্তাব তুলে নেয়ার মাধ্যমে বিরোধী দল আলোচনার পথ বন্ধ করছে বলে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের একদিন পরই স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, আগামী নির্বাচন পদ্ধতি নিয়ে বিরোধী দল মুলতবি প্রস্তাব প্রত্যাহার করে নিলেও আলোচনার সুযোগ থাকছে।

শিরীন শারমিন শনিবার সাংবাদিকদের বলেছেন, “বাজেট আলোচনার সময় বিরোধী দলের বিভিন্ন প্রস্তাব নিয়ে আলোচনার সুযোগ সীমিত। তবে বাজেট পাসের পরও কয়েকদিন সংসদ অধিবেশন চলবে, তখন আলোচনার সুযোগ আছে।”

“বিরোধী দল চাইলে যে কোনো আলোচনার সুযোগ দেয়া হবে,“ বলেছেন স্পিকার; গত মাসে দায়িত্ব নেয়ার পর তিনি সংলাপের উদ্যোগ নেয়ার আশ্বাস দেন।

আগামী নির্বাচন পদ্ধতি নিয়ে দুই প্রধান দলের বিপরীত অবস্থানে সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন শুরুর দিন ‘তত্ত্বাবধায়ক’ ফিরিয়ে আনার দাবিতে জমা দেয়া মুলতবি প্রস্তাব প্রত্যাহার করে নেয় বিএনপি।

গত ২২ মে সংসদ সচিবালয়ে ওই প্রস্তাব জমা দেয়া হয়। কার্যপ্রণালী বিধির ৬২ বিধিতে দেয়া ওই নোটিসে সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচনের স্বার্থে কেয়ারটেকার সরকার পদ্ধতি পুনর্বহালের প্রস্তাব রাখা হয়েছিল।

সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনের পর তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতি বিলুপ্ত হওয়ায় এখন আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে।

তবে দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন নিরপেক্ষ হবে না দাবি করে নিদর্লীয় সরকারে প্রতিষ্ঠার দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে আসছে বিরোধী দল।

রাজধানীর একটি হোটেলে ‘জেন্ডার মেইনস্ট্রিমিং ইন বাংলাদেশ পার্লামেন্ট’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে যোগ দেন স্পিকার, সেখানে সাংবাদিকরা তাকে প্রশ্ন করেন।

সংসদে বিরোধী দলের সঙ্গে বৈষম্য করা হচ্ছে- বিএনপির এই অভিযোগ নাকচ করে তিনি বলেন, “স্পিকারের চেয়ারে থেকে পক্ষপাতের সুযোগ নেই।”

৮৩ দিন বর্জনের পর সংসদের চলতি অধিবেশনে ফেরা বিএনপি এখন পর্যন্ত তিন দফা ওয়াক আউট করেছে।

কথা বলতে দেয়া হচ্ছে না অভিযোগ করে গত বুধবার ওয়াক আউটের পর বিএনপির পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়, বিরোধী দলের প্রতি বৈষম্য করা হয়েছে।

ওই দিন সংসদ অধিবেশনে বিএনপির নেতা তারেক রহমানকে নিয়ে মন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় কথা বলতে দাঁড়িয়েছিলেন বিএনপির সাংসদ সৈয়দা আশিফা আশরাফী পাপিয়া কথা বলতে চাইলেও ‘বিধিসম্মত’  না হওয়ায় তা নাকচ করেন স্পিকার।

শিরীন শারমিন সাংবাদিকদের বলেন, “সুনির্দিষ্ট বিধি নিয়ে একটি কনফিউশন তৈরি হয়েছিলো। আমি তাদের পয়েন্ট অব অর্ডার ফরমুলেট করতে বলেছিলাম। তাদের প্রতি কোনো বৈষম্য করা হয়নি।”

বিরোধী দল বাজেট উপস্থাপনের সময় না থাকলেও পরের কার্যদিবসে থাকবেন বলে আশা করেছেন স্পিকার।

শেয়ার করুন