পরীক্ষা শেষ হবার ৬৫ দিনের মাথায় প্রকাশিত হল মাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফল

0
85
Print Friendly, PDF & Email

এবার মাধ্যমিকে পাশের হার ৬৬.৩৯ শতাংশ এবং মাদ্রাসা মাধ্যমিকে পাশের হার ৭৯.০৬ শতাংশ।

বৃহস্পতিবার ত্রিপুরা মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি অমিতাভ দেব রায় সাংবাদিক সম্মেলনে মাধ্যমিক এবং মাদ্রাসা মাধ্যমিকের রেজাল্ট প্রকাশ করেন। সব মিলিয়ে গতবারের চাইতে পরীক্ষার ফল এবার ভাল।

২০১৩ সালে রাজ্যে মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছিল ৪৭ হাজার ৯৩৩ জন। যা গতবারের চাইতে ০.২৭ শতাংশ বেশি। এছাড়া গতবারের চাইতে পাশের হারও বেড়েছে ২.৫৬ শতাংশ। এবার মাধ্যমিকে পাশের হার ৬৬.৩৯ শতাংশ। গতবার ছিল ৬৩.৮৩ শতাংশ। প্রথম বিভাগে পাশ করেছে ২৩১৯ জন। গতবার প্রথম বিভাগে পাশ করেছিল ২১২৩ জন।

এদিকে ছেলেদের পাশের হার মেয়েদের তুলনায় ০৬.৪৩ শতাংশ বেশি। ছেলেদের পাশের হার ৬৯.৩৯ শতাংশ। অন্যদিকে মেয়েদের পাশের হার ৬২.৯৬ শতাংশ। উপজাতি শিক্ষার্থীদের মধ্যে পাশের হার এ বছর ৪৩.৬৭ শতাংশ। তপসিলি জাতি অংশের শিক্ষার্থীরা পাশ করেছে ৭১.৪৭ শতাংশ। মাদ্রাসা মাধ্যমিকে পাশের হার ৭৯.০৬ শতাংশ। যা গতবার ছিল প্রায় ৭৬ শতাংশ। সব মিলিয়ে গতবারের চাইতে ফলাফল এবার ভাল।

রাজ্যে এবার শতভাগ পাশের হার ছিল ৯৯টি স্কুলে। শতভাগ ফেল ১৪টি স্কুলে। ফলাফলের বিচারে এবারো রাজ্যের সমস্ত জেলাকে টেক্কা দিয়েছে অবিভক্ত দক্ষিণ জেলা। দক্ষিণ জেলায় পাশের হার ৭৯.৪৯ শতাংশ। এছাড়া উচ্চমাধ্যমিকেও সবার সেরা ছিল দক্ষিণ জেলা।

উচ্চমাধ্যমিকের ধারা বজায় থাকল মাধ্যমিকেও। প্রায় সব বিভাগেই ফলাফলের উন্নয়ন, পাশের হার বৃদ্ধি, ফলাফলের সামগ্রিক উন্নয়নে খুশি অভিভাবকরা।

শেয়ার করুন