লিটনকে চিঠি, কারণ দর্শানো নোটিশের জবাব বুলবুলের

0
88
Print Friendly, PDF & Email

নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ আনার পর রাজশাহী নাগরিক কমিটির মেয়র প্রার্থী এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনকে নির্বাচনী আইন সম্পর্কে অবহিত করে চিঠি দিয়েছেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা। শনিবার বিকেলে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন (রাসিক) নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা শুভাষ চন্দ্র সরকার তাকে এ চিঠি প্রেরণ করেন।
একই সাথে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগে কারণ দর্শানো নোটিশের জবাব দিয়েছেন, সম্মিলিত নাগরিক ফোরামের অপর মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। রাসিক নির্বাচনের জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র সরকার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, অভিযোগ দায়ের হলেও পবার ওই উপজেলা এলাকা সিটি নির্বাচনের মধ্যে পড়ে না। তথাপি তিনি নির্বাচন আচরণ বিধিমালার ১৪ এর (ক) এবং (খ) ধারার ভঙ্গের লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে মহাজোট সমর্থিত এবং রাজশাহী নাগরিক ফোরাম মনোনীত মেয়র প্রার্থী এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনকে ওই আইনগুলো সম্পর্কে অবহিত করে চিঠি দিয়েছেন।
শনিবার দুপুরে রাসিক নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে নির্বাচন মনিটরিং কমিটির সভা শেষে  বিকেলে মেয়র প্রার্থী এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনকে এ চিঠি পাঠানো হয়। ওই চিঠিতে তাকে আইন দুইটি সম্পর্কে ভবিষ্যতে সচেতন থাকার পরামর্শও দেওয়া হয়েছে।
এছাড়া শনিবার দুপুরে নির্বাচনী প্রচারণায় ধর্মীয় অনুভূতিকে ব্যবহার করে উস্কানিমূলক বক্তব্য প্রদান সংক্রান্ত আচরণ বিধিমালার ১০ এর (ক) ধারা ভঙ্গের অভিযোগের প্রেক্ষিতে প্রেরিত কারণ দর্শানো নোটিশের জবাব দিয়েছেন, অপর মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। তার জবাবের বিষয়েও পরে আলোচনা সাপক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান রিটার্নিং কর্মকর্তা।
এর আগে গতকাল শুক্রবার রাতে মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট তোফাজ্জল হোসেন তপু মেয়র প্রার্থী এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনের বিরুদ্ধে এবং গত বুধবার মেয়র প্রার্থী লিটনের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট নওশের আলী মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের বিরুদ্ধে পৃথক এ অভিযোগ দাখিল করেন।
মুলতঃ গত মঙ্গলবার ও বুধবার আঠারো দলের সংবাদ সম্মেলনে হেফাজত নেতার বিশেষ মোনাজাত ও বক্তব্য এবং পবা উপজেলায় শুক্রবার দিনভর সরকারের তিন প্রতিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের বৈঠকের প্রেক্ষিতে পাল্টাপাল্টি এ অভিযোগ করা হয়। এরপর থেকেই এ দুই ইস্যুতে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে রাজশাহীর নির্বাচনী ময়দান। প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা করছেন পাল্টা-পাল্টি অভিযোগ।

শেয়ার করুন