সিলেটে কামরানের আনারস আরিফের টেলিভিশন ও রিমনের তালা

0
79
Print Friendly, PDF & Email

সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে তিন মেয়র প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। গতকাল সকাল ১১টায় সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার এমএম এজহারুল হক প্রার্থীদের হাতে প্রতীক তুলে দেন। মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং নাগরিক কমিটি ও ১৪ দলসমর্থিত বদর উদ্দিন আহমদ কামরান আনারস, কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য এবং সম্মিলিত নাগরিক জোট ও ১৮ দল সমর্থিত আরিফুল হক চৌধুরী টেলিভিশন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সালাহ উদ্দিন রিমন তালা প্রতীক পেয়েছেন।
প্রতীক বরাদ্দ শেষে রিটার্নিং কর্মকর্তা জানান, মেয়র প্রার্থীরা তাদের পছন্দ অনুসারে প্রতীক পেয়েছেন। এছাড়া সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৩৫ ও সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১৩৬ প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ করা হয়েছে বলে জানান নির্বাচন কর্মকর্তা এমএম এজহারুল হক। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ১৫ জুন ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এদিকে প্রধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বী বদর উদ্দিন আহমদ কামরান ও আরিফুল হক চৌধুরী নিজ নিজ নির্বাচন কার্যালয় চালু করেছেন। জিন্দাবাজার শ্যামলী সেন্টারে আরিফুল হক ও গুলশান সেন্টারে বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের প্রধান নির্বাচন কার্যালয় গতকাল উদ্বোধন করা হয়। কাউন্সিলর প্রার্থীরা নিজ নিজ ওয়ার্ডে মাইকিং শুরু করেছেন।
নির্বাচনী বিধি লঙ্ঘনে কামরানকে কারণ দর্শানোর নোটিশ : মেয়র পদে আওয়ামী লীগ-সমর্থিত প্রার্থী বদরউদ্দিন আহমদ কামরানকে নির্বাচন বিধি উপেক্ষা করার জন্য কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। রিটার্নিং কর্মকর্তা এস এম এজহারুল হক স্বাক্ষরিত কারণ দর্শানোর নোটিশটি কামরানের বরাবরে পাঠানো হয়েছে। নির্বাচন কমিশন সূত্র জানায়, গত শনিবার রাতে সিলেট অডিটোরিয়ামে সিটি করপোরেশনের অনুদানে নজরুল জন্মজয়ন্তী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন। বক্তৃতায় তিনি পরোক্ষভাবে ভোট প্রার্থনা করেন। এতে নির্বাচন আচরণ বিধিমালা ২০১০-এর বিধি-৩ লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়। এ মর্মে গতকাল সোমবারের মধ্যে কামরানের বক্তব্য জানতে চাওয়া হয়েছে।
আওয়ামী লীগের সভা : সিলেটসহ দেশের চারটি সিটি নির্বাচনে শেখ হাসিনার নির্দেশে দলের কেন্দ্রীয় টিম পর্যবেক্ষণ করছে। নির্বাচন নিয়ে দলের নেতাকর্মীদের সামগ্রিক কার্যক্রমের বিষয়ে তারা সভানেত্রীর কাছে কাছে রিপোর্ট করবেন। রোববার রাতে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের যৌথ সভায় এ তথ্য জানান দলের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ। তিনি নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডে ১২৭টি সেন্টার কমিটি গঠনেরও তাগিদ দেন। ১৮ দলের মেয়র প্রার্থী আরিফুল হককে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, দুর্নীতির দায়ে জেলখাটা ব্যক্তিকে সিলেটের মানুষ নির্বাচিত করবে না। নগরীর গুলশান সেন্টারে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুজ জহির চৌধুরী সুফিয়ানের সভাপতিত্বে ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদের পরিচালনায় আয়োজিত সভায় বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, জেবুন্নেছা হক এমপি, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী এমপি, কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আহমদ আল কবির, স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সুব্রত পুরকায়স্থ, জাতীয় শ্রমিক লীগের সহসভাপতি প্রকৌশলী এজাজ আহমদ।
‘দেশের ক্রান্তিলগ্নে আরিফুলকে নির্বাচিত করুন’ : খেলাফত মজলিস সিলেট মহানগর ও জেলা শাখার এক যৌথ নির্বাহী বৈঠক রোববার রাত ৮টায় স্থানীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। সিলেট মহানগর সভাপতি হাফিজ মাওলানা নুরুজ্জামানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ আবদুল হান্নানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মুনতাসির আলী বলেন, ক্ষমতাসীন আওয়ামী সরকার মুসলমানদের ঈমান-আকিদার ওপর আঘাত হেনে তারা প্রমাণ করেছে ইসলামবিদ্বেষী। তাই দেশের বর্তমান সংকটময় মুহূর্তে সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ১৮ দলীয় জোটের প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে হবে। এ লক্ষ্যে সিলেট সিটি করপোরেশনের সব ওয়ার্ড শাখার নেতাকর্মীকে সক্রিয়ভাবে কাজ করে যেতে হবে। যৌথসভায় নির্বাচন পরিচালনার জন্য ১৮ দলীয় জোটের কমিটির পাশাপাশি খেলাফত মজলিসের পক্ষ থেকে ১৩ সদস্যবিশিষ্ট একটি সমন্বয় কমিটি গঠন করা হয়। সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খেলাফত মজলিস সিলেট জেলা শাখার সহসভাপতি সৈয়দ মুহিবুর রহমান, মহানগর সহসভাপতি ইঞ্জিনিয়ার রফিকুল হক, অধ্যাপক বজলুর রহমান, আবদুল হান্নান তাপাদার, জেলা সহ সাধারণ সম্পাদক মাওলানা সামছুদ্দিন মোহাম্মদ ইলিয়াস, মাওলানা নেহাল আহমদ, মহানগর সহ সাধারণ সম্পাদক মাওলানা তাজুল ইসলাম হাসান, কে এম আবদুল্লাহ আল মামুন, মহানগর প্রশিক্ষণ সম্পাদক ডা. এনামুল হক, জেলা প্রশিক্ষণ সম্পাদক মাওলানা আবদুল্লাহ আল হাদী, জেলা শাখার অফিস ও বায়তুল মাল সম্পাদক মাওলানা ওলিউর রহমান প্রমুখ।
মহানগর যুবলীগের গণসংযোগ : বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আহমদ আল কবিরের নেতৃত্বে সিলেট মহানগর যুবদলীগের নেতাদের সঙ্গে নিয়ে মেয়র প্রদপ্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের আনারস প্রতীকের সমর্থনে দরগাহ থেকে আম্বরখানা পয়েন্ট পর্যন্ত এক প্রচারণা ও গণসংযোগ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন—মহানগর যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সুদীপ দে, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মুশফিক জায়গীরদার, আসাদুজ্জামান আসাদ, সুয়েব আহমদ, সাদিকুর রহমান, পিংকু আবদুর রহমান, আলম খান মুক্তি, ফারুক আহমদ, কয়েস উদ্দিন, সুবেদুর রহমান মুন্না, সেলিম আহমদ সেলিম, সামসুদ্দিন সামস, ফয়সল আজাদ খান, বিধান পাল, লিটন পাল, সুলতান আলী মনসুর, মুফতি আবদুল খাবির, রিয়াদ আহমদ রুবেল, খলিলুর রহমান বেলাল, সাজু ইবনে হান্নান খান, ফয়জুর রহমান ফয়েজ, লিটন আহমদ প্রমুখ।

শেয়ার করুন