সামরিক শাসন ফেরানোর পাঁয়তারা: প্রধানমন্ত্রী

0
126
Print Friendly, PDF & Email

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, একটি মহল দেশে আবারও সামরিক শাসন ডেকে আনার চেষ্টা করছে।সামরিক শাসন ফেরানোর পাঁয়তারা: প্রধানমন্ত্রী
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জুলিও-কুরি শান্তিপদক প্রাপ্তির ৪০ বছর উপলক্ষে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: পিআইডি
 
বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জুলিও-কুরি শান্তিপদক প্রাপ্তির ৪০ বছর উপলক্ষে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।
 
প্রধানমন্ত্রী বলেন, “একটি মহল দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করছে, সামরিক শাসন ডেকে আনার চেষ্টা করছে।”
 
গণতন্ত্র জনগণের অধিকার ও সুযোগ- একথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “তবে ১৯৭৫ সালের পর জনগণের এ অধিকার ও সুযোগ বারবার ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে এবং কিছু শিক্ষিত ও সুশীল সমাজের সদস্য এতে সমর্থন দিয়েছেন।”
 
শেখ হাসিনা বলেন, এখন আবার দেশে ওই একই ধরনের পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টা চলছে।
 
এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী প্রশ্ন রেখে বলেন, “রাজনীতিবিদরা দেশ চালাতে না পারলে, কে চালাতে পারবে? ২০০৭ সাল থেকে দুই বছর দেশ চালিয়েছে তত্ত্বাবধায়ক সরকার। তবে তারা দেশ ও জনগণের জন্য কি করেছে?”
 
বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ব্যর্থতার কঠোর সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেছেন, সরকার বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টাদের উপদেশ শুনলে বাংলাদেশের অগ্রগতি ব্যাহত ও গণতন্ত্র সুপ্রতিষ্ঠিত হবে না।
 
তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, “দেশে এক-এগারোর পরে যারা সাধারণ নির্বাচনই দিতে পারেননি আমরা কেন তাদের সবক শুনবো?”
 
বাংলাদেশ শান্তি পরিষদ এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। বিশ্ব শান্তি পরিষদের নির্বাহী সম্পাদক ইরাক্লিস সাবদারিদিস, সাবেক মন্ত্রী ও নিখিল ভারত শান্তি ও সংহতি সংস্থার সহ-সভাপতি প্রমোদ চন্দ্র সিনহা এবং নেপাল শান্তি ও সংহতি পরিষদের সদস্য জ্ঞানেন্দ্র বাহাদুর শ্রেষ্ঠ অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।

শেয়ার করুন