সাকিবের নৈপুণ্যে বাংলাদেশের জয়

0
52
Print Friendly, PDF & Email

বিজয়ী বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব আবুল কালাম আজাদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে প্রধানমন্ত্রী উত্তরোত্তর সাফল্যে কামনা করেন এবং বিজয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রাখার আহ্বান জানান।

রোববার বুলাওয়ায়োর কুইন্স স্পোর্টস পার্কে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেটে ১৬৮ রান করে বাংলাদেশ। জবাবে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৩৪ রানে থেমে যায় জিম্বাবুয়ের ইনিংস।

অফস্পিনার প্রসপার উৎসেয়ার করা ম্যাচের প্রথম ওভারের চতুর্থ বলে শামসুর রহমান (২) সাজঘরের পথ ধরায় বাংলাদেশের শুরুটা ভালো হয়নি।

দ্বিতীয় উইকেটে ৪৯ বলে সাকিবের সঙ্গে তামিম ইকবালের ৮২ রানের জুটি অতিথিদের বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে দেয়। নাতসাই মুশাঙ্গবের বলে ডিপ স্কয়ার লেগে সাকিব (৪০) সিকান্দর রাজার হাতে ধরা পড়লে ভাঙ্গে বিপজ্জনক জুটি। সাকিবের ২৮ বলের ইনিংসে ৬টি চার ও ১টি ছক্কা।

১০ ওভারে ২ উইকেটে ৯৯ রানের দৃঢ় ভিতের ওপর দাঁড়ায় বাংলাদেশ। এগারোতম ওভারে তামিম (৪৩) শিঙ্গিরাই মাসাকাদজার সহজ ক্যাচে পরিণত হলে বড় একট ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। তামিমের ৩০ বলের ইনিংসে ৬টি চার ও ১টি ছক্কা।

আম্পায়ারের বিতর্কিত সিদ্ধান্তে মুশফিকুর রহিম (১২ বলে ১৭) ও মাহমুদুল্লাহর (১) দ্রুত বিদায় বিপদ আরো বাড়ায়। জিয়াউর রহমানের বদলে দলে ফেরা মমিনুল হকের (৯) সঙ্গে ৩৬ রানের জুটি গড়ে ধাক্কা সামাল দেয়ার চেষ্টা করেন নাসির হোসেন।

ব্রায়ান ভিটোরির করা আঠারো ওভারেরতম ওভারের শেষ দুই বলে মমিনুল ও নাসির (২৩ বল ২৭) বিদায় দলকে আবার চাপে ফেলে। মমিনুল বোল্ড ও নাসির রান আউট হন। এরপর সোহাগ গাজী (৭ বলে ৮*) ও আব্দুর রাজ্জাক (৬ বলে ৬*) দলকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দেন।

১৫ রানে ২ উইকেট নিয়ে উৎসেয়া জিম্বাবুয়ের সেরা বোলার।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ৫ রানেই হ্যামিল্টন মাসাকাদজার বিদায়ে জিম্বাবুয়ের শুরুটা ভালো হয়নি। ভুসিমুজি সিবান্দার সঙ্গে অধিনায়ক ব্রেন্ডন টেইলরের (১৫) ৪০ রানের জুটি ধাক্কা সামাল দেয়ার চেষ্টা করে।

পঞ্চম ওভারের শেষ বলে টেইলরকে নাসিরের ক্যাচে পরিণত করে স্বাগতিকদের বড় একটা ধাক্কা দেন সাকিব। শফিউল ইসলামের করা সপ্তম ওভারের শেষ বলে সিবান্দা (৩২) মাহমুদুল্লাহর ক্যাচে পরিণত হলে চালকের আসনে বসে বাংলাদেশ।

শন উইলিয়ামস (১৬) ও ম্যালকম ওয়ালারের (১০) দ্রুত বিদায় দলের বিপদ আরো বাড়ায়। উইলিয়ামস অভিষিক্ত রবিউল ইসলামের সরাসরি থ্রোয়ে রানআউট এবং ওয়ালারকে মমিনুলের ক্যাচে পরিণত করেন রাজ্জাক।

এরপরও জিম্বাবুয়ের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রেখেছিলেন সিকান্দর রাজা (৩২)। সতেরতম ওভারে তাকে বোল্ড করে দলের সহজ জয় নিশ্চিত করেন সাকিব। এরপর আর জিম্বাবুয়ের ইনিংস বেশি দূর এগোয়নি।

ম্যাচ ও সিরিজ সেরা সাকিব ২২ রানে ৪ উইকেট।

সফরে ১-১ সমতায় টেস্ট সিরিজ ড্র করলেও ২-১ ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজ হেরে যায় বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ: ১৬৮/৭ (তামিম ৪৩, শামসুর ২, সাকিব ৪০, মুশফিক ১৭, নাসির ২৭, মাহমুদুল্লাহ ১, মমিনুল ৯, সোহাগ ৮*, রাজ্জাক ৬*; উৎসেয়া ২/১৫, হ্যামিল্টন ১/৪, ভিটোরি ১/২৬, মুশাঙ্গবে ১/২৯, পানিয়াঙ্গরা ১/৪২)

জিম্বাবুয়ে: ১৩৪/৯ (হ্যামিল্টন ২, সিবান্দা ৩২, টেইলর ১৫, উইলিয়ামস ১৬, রাজা ৩২, ওয়ালার ১০, শিঙ্গিরাই ৯, উৎসেয়া ৬, মুশাঙ্গবে ০, পানিয়াঙ্গরা ১*, ভিটোরি ১*; সাকিব ৪/২২, রাজ্জাক ২/১৮, শফিউল ২/২০)

শেয়ার করুন