দেশে ২০১১ সালের তুলনায় ২০১২ সালে শিশু খুন ও অপহরণ বেড়েছে

0
56
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা: দেশে ২০১১ সালের তুলনায় ২০১২ সালে শিশু খুন ও অপহরণ উদ্বেগজনক হারে বেড়েছে বলে জানিয়েছে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন।

রোববার প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ শিশু পরিস্থিতি ২০১২ প্রকাশ করার সময় একথা জানান সংস্থার কর্মব্যবস্থাপক আবদুল্লাহ আল মামুন।

মূল প্রবন্ধ উপস্থানকালে তিনি বলেন, “২০১২ সালে ৪১৪ শিশু খুন হয়েছে। এ সংখ্যা ২০১১ সালে ছিলো ৩০৪।”

তিনি জানান, তবে অহরণের সংখ্যা বেড়েছে চোখে পড়ার মতো। ২০১১ সালে শিশু অপহরণের সংখ্যা ছিলো ১০৩। এর মধ্যে হত্যা করা হয় ৬ শিশুকে। অথচ ২০১২ সালে এসে এ সংখ্যা হয়েছে ২৬৫। ২০১২ সালের অপহরণ হওয়া শিশুদের মধ্যে হত্যার সংখ্যা ১৫ । যা দুঃখজনক।
 
মূল প্রবন্ধে দেখা যায়, হত্যা ও অপহরণ বাড়লেও ধর্ষণের পরিমাণ কমেছে। ২০১২ সালে শিশু ধর্ষণের ঘটনা ছিল ১শ’ ৫৫টি। ২০১২ সালে শিশু ধর্ষণের সংখ্যা ১৯১টি।

বিশ্লেষণে দেখা যায়, বেশির ভাগ শিশু ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে শিশু স্কুলে যাওয়ার পথে এবং শিক্ষকদের দ্বারা।

মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের গবেষণায় পারিবারিক কলহ, যৌন হয়রানির শিকারসহ অন্যান্য কারণে ২০১২ সালে শিশু আত্মহত্যা করেছে ১৬৫টি ।  প্রেমজনিত কারণে বেশি শিশু আত্মহত্যা করেছে। সড়ক দুর্ঘটনায় ২০১২ সালে ৩৬৩টি শিশু নিহত হয়। আহত হয় ১২৯ । ২০১১ সালে এ সংখ্যা ছিল ৩৮৪।

আবদুল্লাহ আল মামুন আরো বলেন, “সংবাদপত্রে শিশু বিষয়ক ইতিবাচক সংবাদগুলোর মধ্যে রয়েছে পাচার, অপহরণ বাল্যবিবাহ শিকার শিশুদের উদ্ধার। এরপর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সংবাদ ছিলো বিভিন্ন উৎসবে শিশুদের অংশগ্রহণ প্রভৃতি। ২০১২ সালে  শিশু বিষয়ে প্রচারিত সংবাদের মধ্যে ইতিবাচক সংবাদ ছিলো ১ হাজার ১৭২টি ও নেতিবাচক সংবাদ ছিলো ২ হাজার ৬৭৭টি।

আরো উপস্থিত ছিলেন শাহেদা হুদা রঞ্জনা ও ড. শামীম ইমাম।

 মার্চ ২৪, ২০১৩

শেয়ার করুন