চান্দিনায় অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা

0
156
Print Friendly, PDF & Email

চান্দিনা (কুমিল্লা): চান্দিনা উপজেলার পানিপাড়া গ্রামে সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী শারমিন আক্তারের (২২) গায়ে কেরোসিন ঢেলে তাকে তার স্বামী আতিকুল ইসলাম (৩২) পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

রোববার ভোর ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আতিকুলসহ দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আগুনে শারমিনের হাত-পাসহ সমস্ত শরীর ঝলসে গেছে। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

গৃহবধূ শারমিন ব্রাহ্মনপাড়া উপজেলার নাগাইশ গ্রামের বজলুর রহমানের মেয়ে।

শারমিনের বাবা বজলুর রহমান জানান, ১০ মাস আগে পানিপাড়া গ্রামের মো. হারেছ মিয়ার ছেলে আতিকুল ইসলামের সঙ্গে শারমিনের বিয়ে হয়।

বিয়েতে তিন লাখ টাকা এবং পাঁচ ভরি সোনার গহনা যৌতুক হিসেবে দেওয়া হয়। তারপরও বিয়ের পর থেকেই স্বামী ও শ্বশুর আরো যৌতুকের জন্য শারমিনের ওপর নির্যাতন চালিয়ে আসছিলেন এবং যৌতুক না পেলে তাকে তালাক দেওয়ার হুমকি দিয়ে আসছিলেন।

এরই ধারাবাহিকতায় ভোর ৪টার দিকে আতিকুল ঘুমন্ত শারমিনের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন। এ অবস্থায় শারমিনের আর্ত চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে কুমিল্লা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু তার অবস্থা খারাপ হওয়ায় চিকিৎসকদের পরামর্শে পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।

এ ব্যাপারে শারমিনের বাবা বাদী হয়ে চান্দিনা থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এ মামলায় পুলিশ স্থানীয়দের সহায়তায় আতিকুল ইসলাম ও তার ভগ্নিপতি আমির হোসেনকে গ্রেফতার করেছে।

মার্চ ১৭, ২০১৩   

শেয়ার করুন