অজন্তা মেন্ডিসের কথা ভুলে যান

0
75
Print Friendly, PDF & Email

স্পোর্টস ডেস্ক অজন্তা মেন্ডিসের কথা ভুলে যানশ্রীলঙ্কার প্রথম রহস্য স্পিনারের নাম অজন্তা মেন্ডিস নয়নামটা জেনে অবাক হতে পারেনরঙ্গনা হেরাথ!
জানা না থাকলে তাঁকে দেখে ক্রিকেটার মনে হওয়ার কোনো কারণ নেই৫ ফুট ৭ ইঞ্চির গাট্টাগোট্টা শরীর, শ্রীলঙ্কার দোকানে-টোকানে হেরাথ-সদৃশ অনেকের দেখা মেলেবোলিংটাও বাইরে থেকে খুব সাধারণ লাগেসাধারণ বলতে অর্থোডক্স বাঁহাতি স্পিনার যেমন হয় আর কি! অথচ এই রঙ্গনা হেরাথই নাকি আবির্ভাবে পরিচিত ছিলেন রহস্য স্পিনারহিসেবেযে ক্যারম বল করে অজন্তা মেন্ডিস হইচই ফেলে দিয়েছিলেন, সেটিও নাকি তিনিই প্রথম শুরু করেন
রঙ্গনা হেরাথকে এখন আর কেউ রহস্য স্পিনার বলে নাতবে কলম্বোর প্রেমাদাসায়রহস্যহিসেবেই আবির্ভূত হলেন কালসিমিং উইকেট বলে এত কথা, দুই দলই যাতে নিশ্চিত হয়ে স্পিনার কমিয়ে পেসার বাড়াল দলেঅথচ দিন শেষে সফলতম বোলার কিনা রঙ্গনা হেরাথ!
গলে এমন হলে কেউ অবাক হতো নামুত্তিয়া মুরালিধরনের প্রিয় মৃগয়াক্ষেত্র রঙ্গনা হেরাথেরও একই রকম পছন্দবাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্টের আগে যেখানে ৪ টেস্টে তাঁর ৩৬ উইকেট, সেখানে এবার মাথা কুটে মরলেন আর নায়ক হয়ে গেলেন কিনা প্রেমাদাসায়! গলে এবারের দুঃসহ অভিজ্ঞতা এখনো যে তাঁর মনে তরতাজা, সেটি প্রকাশও করলেন‘(গলে) ৫০ উইকেট হতে আমার দুটি উইকেট দরকার ছিলঅনেক চেষ্টা করেও তা পেলাম না’—বলার সময় অবশ্য মুখে হাসিমাত্রই যে ১৫তম বারের মতো ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়েছেন
মাহেলা জয়াবর্ধনে কিছুদিন আগে বলেছিলেন, তাঁর দেখা শ্রীলঙ্কান বোলারদের মধ্যে দ্বিতীয় সেরা এই হেরাথসেরা কে, সেটি বোধ হয় না বললেও চলছেমুরালির ছায়াতেই ঢাকা পড়ে ছিলেন প্রায় ১০ বছরসেই ১৯৯৯ সালে, অথচ ১৪ বছরে এটি তাঁর মাত্র ৪৭তম টেস্টমুরালি খেলা ছাড়ার পরই আলোয় আসামুরালির বিদায়ের পর এই টেস্টের আগে ২৪ টেস্টে তাঁর ১১৭ উইকেটপ্রথম ২২ টেস্টে উইকেট ছিল মাত্র ৭১টি
মুরালিধরনের শূন্যস্থান পূরণের কঠিন দায়িত্বও পড়েছে তাঁর ওপরমুরালিধরনও গত পরশুই আমি নেই তো কী, হেরাথ তো খুব ভালো করছেবলে উত্তরসূরির প্রশংসা করলেনযা শুনে হেরাথ খুব খুশিতবে মুরালির শূন্যস্থান পূরণের কথা উঠতেই জিভে কামড় দিয়ে ফেললেনমুরালি একজনইআর কেউ তাঁর মতো হতে পারবে নাআমি এমন চিন্তাও করি না’—সংবাদ সম্মেলন শেষে বেরিয়ে যাওয়ার সময় বললেন হেরাথমুরালির সঙ্গে বোলিং করার অভিজ্ঞতাকেও তাঁর সাম্প্রতিক সাফল্যে বড় অবদান বলে মানছেন, ‘মুরালির কাছ থেকে অনেক কিছু শিখেছিওর বোলিং দেখে যেমন শিখেছি, তেমনি ও অনেক কিছু শিখিয়েছেওএর মধ্যে সবচেয়ে বড় শেখামনে করেন কোনটিকে? হেরাথের উত্তর, ‘ধৈর্য
তা ধৈর্যের প্রমাণ তিনি ভালোই রেখেছেনতাঁর সময়ও একদিন আসবে ভেবে মুরালির ছায়ায় অপেক্ষা করেছেন বছরের পর বছরবিনয়ের প্রমাণও ভালোই রাখলেন, ‘আমরাও ভেবেছিলাম, উইকেট সিমারদের সাহায্য করবেকিন্তু বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা সিমারদের বিপক্ষে ভালো ব্যাটিং করেছেআমার ভাগ্য ভালো, উইকেট পেয়েছি, তবে ইরাঙ্গা-কুলে-সুরঙ্গও ভালো বোলিং করেছে
শ্রীলঙ্কা তিন সিমার নিয়ে খেলল আর উইকেট পেলেন কিনা তিনিএই প্রশ্নের জবাবেও বিনয়, ‘কখনো কখনো তো হাফ বোলাররাও অনেক উইকেট পেয়ে যায়ফাস্ট বোলাররা আমাকে অনেক সহায়তা করেছে, এ কারণেই আমি উইকেট পেয়েছি
বোলিংয়ের কারণে কয়েক বছর ধরেই খবরে আসছেনতবে রঙ্গনা হেরাথকে নিয়ে সবচেয়ে বড় খবরটা ছড়িয়ে পড়েছিল গত জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়া সফরের সময়সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের কল্যাণে ছড়িয়ে পড়েছিল, মেলবোর্নে এক সড়ক দুর্ঘটনায় হেরাথ ও চামিন্ডা ভাস মারা গেছেনহেরাথ ম্যাচ খেলতে নেমে পড়েছিলেন বলে গুজবটার আয়ু দীর্ঘস্থায়ী হয়নিতবে ম্যাচ শেষে দিমুথ করুনারত্নে মহাবিস্ময়ের সঙ্গে বলেছিলেন, ‘সকালে ব্রেকফাস্ট টেবিলে আমরাও খবরটা শুনেছিআমাদের ফোন করে অনেকে জানতে চাইছিল, শেষকৃত্যটা কবে হবে!
শেষ পর্যন্ত না হয় মৃত্যুর খবরটা মিথ্যাই প্রমাণিত হয়েছেতবে যেদিন এই খবরটা ছড়িয়ে পড়ল, সেদিনই হেরাথকে মাঠে দেখে অনেকেই ধন্দে পড়ে গিয়েছিলেন, রঙ্গনা হেরাথের পুনর্জন্ম হলো কি না!
এক অর্থে পুনর্জন্মের অভিজ্ঞতা তো হয়েছেই হেরাথেরমুরালিধরনের বিদায়ের পর বোলার রঙ্গনা হেরাথের পুনর্জন্ম!

 

( মার্চ): নিউজরুম

 

শেয়ার করুন