গাইবান্ধায় ১০ হাজার জামায়াত কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

0
171
Print Friendly, PDF & Email

গাইবান্ধা: গাইবান্ধায় বৃহস্পতিবার হরতাল চলাকালে পুলিশ হত্যা, থানায় হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় পৃথক দুইটি মামলা হয়েছে। এতে দশ হাজার জামায়াত-শিবিরকর্মীকে আসামি করা হয়েছে।

শুক্রবার সকালে সুন্দরগঞ্জ থানা উপ-পরিদর্শক মিজানুর রহমান ও আবু হানিফ বাদী হয়ে এ মামলা করেন। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে।
সুন্দরগঞ্জ থানা উপ-পরিদর্শক(এসআই) মিজানুর রহমান মামলার বিষয় নিশ্চিত করে বলেন, ‘বৃহস্পতিবার হরতাল চলাকালে জামায়াত-শিবির কর্মীরা পুলিশের ওপর ও থানায় হামলা চালায়। এতে ৪ পুলিশসহ ৭ জন নিহত হয়।
পুলিশ হত্যা, কর্তব্যে বাঁধা ও ভাংচুরের ঘটনায় দুই মামলায় অজ্ঞাত ১০হাজার জামায়াত-শিবিরকর্মীকে আসামি করা হয়েছে।
এ ঘটনায় শুক্রবার সকালে পুলিশ এক জামায়াতকর্মীকে আটক করেছে। তবে তার নাম পরিচয় জানাননি তিনি।
উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার সাঈদীর ফাঁসির রায় ঘোষণার পর জামায়াত-শিবির কর্মীরা সংগঠিত হয়ে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে গোটা সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় তাণ্ডব শুরু করে। তারা সুন্দরগঞ্জ থানা ঘেরাও করে থানায় হামলার চেষ্টা চালায়।

পুলিশ প্রথমে ফাঁকা গুলি করে তাদের নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে। কিন্তু জামায়াত-শিবির কর্মীরা থানায় হামলা চালালে পুলিশ তাদের ওপর গুলি চালায়। এ সময় জামায়াত-শিবিরের ৩ কর্মী নিহত হন। অপরদিকে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনডাঙ্গা রেলস্টেশন, রেলের প্রকৌশলীর অফিস ও গোডাউনে আগুন লাগিয়ে দেয় জামায়াত-শিবিরের কর্মীরা। 

 মার্চ ১, ২০১৩

শেয়ার করুন