দেশের বিভিন্ন শিল্পে আঠার ব্যবহার বাড়ছে

0
57
Print Friendly, PDF & Email

ব্যবসা ও অর্থনীতিডেস্ক(০৯ ফেব্রুয়ারী): দেশের বিভিন্ন শিল্পে আঠার ব্যবহার বাড়ছে১০ বছর আগেও প্রধানত চামড়ার জুতা ও ব্যাগ তৈরিতে ব্যবহূত হতো আঠাএখন ব্যবহূত হচ্ছে তৈরি পোশাক, স্ক্রিনপ্রিন্ট, কাঠ এবং কাঠের বিকল্প প্লাইউডসহ বিভিন্ন সামগ্রীতে
ব্যবহার বাড়ার পাশাপাশি বেড়েছে এর বিস্তারএকসময় শুধু পুরান ঢাকায় আঠার কারখানা থাকলেও এখন তা ছড়িয়ে পড়েছে দেশব্যাপীঢাকা ও চট্টগ্রাম মিলিয়ে দেশে আঠা প্রস্তুতকারক কারখানা এখন ৪০টিএক দশক আগের ১০ কোটি টাকার আঠার বাজার এখন ১০০ কোটি টাকার বেশিবাংলাদেশ অ্যাডহেসিভ উপাদনকারী সমিতি (বিএএমএ) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে
আগে ব্যবসাটি ছিল মূলত পুরান ঢাকার বংশাল, সিদ্দিক বাজার, সিক্কাটুলি ও মালিটোলাকেন্দ্রিকবর্তমানে এসব এলাকা আঠার মতো পণ্যের কারখানা তৈরির উপযোগী নয়তাই ঢাকার কাছাকাছি বিভিন্ন স্থানে ও চট্টগ্রামে আঠার কারখানা গড়ে উঠেছে
বিএএমএ সূত্রে জানা গেছে, আঠার ৩০০ পাইকারি দোকান রয়েছে পুরান ঢাকায়এসব এলাকায় রয়েছে পাঁচ হাজারের মতো ছোট ও মাঝারি মানের জুতার কারখানাঅন্যদিকে, চকবাজার, মোগলটুলি ও মৌলভীবাজার এলাকায় রয়েছে প্রায় ২০০ ব্যাগের কারখানাএগুলোতেই ব্যবহূত হয় বিভিন্ন ধরনের আঠা
সমিতির সভাপতি টিকে চক্রবর্তী প্রথম আলোকে জানান, আঠার কাঁচামাল দেশে হয় নাতা আমদানি করা হয় ভারত, চীন, মালয়েশিয়া প্রভৃতি দেশ থেকেদেশের রাবার বাগান থেকে একধরনের কাঁচামাল সংগ্রহ করে আঠা তৈরি করা হলেও তা অতটা উন্নত মানের হয় না
পুরান ঢাকার বিভিন্ন ব্যবসায়ীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এসব কারখানায় চামড়া, র‌্যাক্সিন ও কাপড়ের এক অংশের সঙ্গে অন্য অংশের জোড়া লাগানোর কাজে ব্যবহূত হয় আঠাব্র্যান্ডের জুতা ও ব্যাগের কারখানায় উন্নত মানের আঠা ব্যবহারের বিকল্প নেই
মজার ব্যাপার হলো, দোকানি ও ব্যবসায়ীদের কেউই একে আঠা বলেন নাতাঁরা বলেন, পেস্টিন, সলিউশন, দুধ, ল্যাটেক্স, গাম ইত্যাদিএদের মধ্যে আবার গুণগত মানের তারতম্য রয়েছেঅবশ্য এসবের কৌটা বা টিনের গায়ে লেখা থাকে অ্যাডহেসিভ, বাংলায় যাকে বলা হয় আঠা
এপেক্স এডহেসিভ, অটবি, ওয়ার্ল্ড, পারটেক্স, ফেভিকল, বেইলী, গাজী সলিউশন, সোয়ান, এলজি, প্যান্থার, নাহার, জনতা সুপার ইত্যাদি ব্র্যান্ডের আঠা কারখানা থেকে টিনজাত হয়ে সেগুলো চলে আসে পুরান ঢাকায়এখান থেকে যায় সারা দেশেএক থেকে ২০ লিটার পর্যন্ত টিন হয়ে থাকে
কয়েকটি দোকান ঘুরে জানা যায়, তিন লিটারের ডা-কো ব্র্যান্ডের আঠার দাম ৬৩০ টাকাতবে ওয়ার্ল্ড ব্র্যান্ডের তিন লিটারের আঠার দাম ৯৩০ টাকা
সিদ্দিক বাজারের শাহীন ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী শাহীন আহমেদ জানান, সাধারণত দামি জুতা ও ব্যাগে বেশি দামের আঠা ব্যবহূত হয়আবার কিছু কারখানায় ব্যবহূত হয় কম ও বেশি দামিদুই ধরনেরই আঠা
দেখতে অনেকটা তরল দুধের মতো এবং ছোট ছোট কৌটাজাত করা হয় একধরনের আঠা, যা বাচ্চাদের জুতা তৈরিতে ব্যবহূত হয় বেশি
বিএএমএর সভাপতি বলেন, লেটেক্স বা দুধের মান তুলনামূলক খারাপকারণ, এগুলো অত ভালোভাবে প্রক্রিয়াজাত করা হয় নাতিনি মনে করেন সংগত কারণেই উন্নত মানের পণ্য তৈরিতে এগুলো ব্যবহার করা হলে পণ্যের মান টেকসই হবে না
আরিফ ব্র্যান্ডের জুতা কারখানার স্বত্বাধিকারী আরিফ বিল্লাহ বলেন, রাস্তায় যেসব জুতা বিক্রি হয়, এগুলোতে দুধ লাগানো হয়এর মধ্যে রয়েছে তাজমহল, মতিমহল ও হাঁস মার্কা দুধ
ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, দুধের চেয়ে তুলনামূলক গুণগত মানসম্পন্ন আঠা হচ্ছে সলিউশনতার চেয়েও ভালো হচ্ছে পেস্টিনকাজী আলাউদ্দিন রোডের জনতা ফোমসের ব্যবস্থাপক অলিউল্লাহ রনি বলেন, ‘পাইকারি দোকানগুলোতে আঠার টিনগুলো সংরক্ষণের দিকটি অনেকেই অবহেলা করেনমনে রাখা দরকার যে, এটি সহজেই দাহ্যপণ্যএকবার আগুন লাগলে পুরো এলাকা জ্বলে উঠবেকয়েক বছর আগে নিমতলীতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা স্মরণ করেন তিনি
বেঙ্গল অ্যাডহেসিভ লিমিটেডের পণ্য হচ্ছে ডা-কো ও এড-কোবিএএমএর সদস্য ও বেঙ্গল অ্যাডহেসিভের কর্মকর্তা শামসুল আলম প্রথম আলোকে বলেন, দিন দিন আঠার বহুমুখী ব্যবহার বাড়ছে, বাজারও বাড়ছেবিভিন্ন আঠা প্রস্তুতকারক কারখানায় প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে ৫০ হাজার মানুষ জড়িত বলে তিনি উল্লেখ করেন
আঠার কাঁচামাল আমদানিতে শুল্ক ফাঁকি দিতে কেউ কেউ আন্ডার ইনভয়েসিং করছেন বলে অভিযোগ তোলেন শামসুল আলমসরকারকে এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি

 

নিউজরুম্

 

শেয়ার করুন