মেঘনায় লঞ্চ ডুবি: ১৪ লাশ উদ্ধার

0
111
Print Friendly, PDF & Email

                   মুন্সীগঞ্জ,(৯ফেব্রুয়ারী) : মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ার মেঘনা নদীতে ডুবে যাওয়া লঞ্চ থেকে শুক্রবার দিনগত মধ্য রাত থেকে পৌনে ৩টা পর্যন্ত ১৪টি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রথমে ৩ জন, মধ্য রাতে দু’দফায় ২ জন ও ৯ জনের লাশ পৃথকভাবে উদ্ধার করা হয়েছে।
এছাড়া ডুবে যাওয়া লঞ্চটি মেঘনা নদীর তীরে ভেড়াতে সক্ষম হয়েছেন উদ্ধারকারী জাহাজ রুস্তম ও সেখানে নিয়োজিত উদ্ধার কর্মীরা। লঞ্চের ভেতরে আর কোনো লাশ নেই বলে জানিয়েছেন বিআইডব্লিউটিএ’র পরিচালক আবুল বাসার।
তিনি জানান, এছাড়া অপর নিখোঁজ যাত্রীদের লাশ ভেসে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সেগুলো উদ্ধারের দায়িত্ব স্থানীয় প্রশাসনের।
নৌ-বাহিনীর কমান্ডার তরিকুল ইসলাম জানান, শুক্রবার দিনগত রাত পৌনে ৩টা পর্যন্ত ১৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩ জন শিশু, ৩ জন পুরুষ, ৪ জন মহিলা ও ২জন তরুণী-কিশোরী রয়েছেন।
নৌ-বাহিনীর ক্যাপ্টেন রাসেল জানান, উদ্ধার তৎপরতা চলছে। আরও লাশ পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
শুক্রবার সকাল ৮টায় বালুবাহী বল্কহেডের ধাক্কায় ডুবে যাওয়া ‘এমএল সারস’ নামের লঞ্চের শিশুসহ ১৪ যাত্রীর লাশ উদ্ধার হলেও এখনও অনেক যাত্রী নিখোঁজ রয়েছেন বলে স্বজনদের দাবি করেছেন।
অন্যদিকে নদীতে লাশ ভেসে উঠতে পারে, এমন আশঙ্কা থাকায় গজারিয়া থেকে চাঁদপুরের মতলব পর্যন্ত মেঘনা নদীতে পুলিশকে টহল দিতে বলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. সাইফুল হাসান বাদল।

নিউজরুম

শেয়ার করুন