বিদ্যুৎ বিভ্রাটে দিশেহারা কৃষক

0
36
Print Friendly, PDF & Email

কৃষি ডেস্ক( ফেব্রুয়ারী): শীত শেষ হওয়ার আগেই ইরি-বোরো মওসুমের শুরুতে গাইবান্ধায় সীমাহীন বিদ্যু বিভ্রাট, লোডশেডিং ও লো ভোল্টেজের কারণে জনজীবনে চরম দুর্ভোগ নেমে এসেছে

 

মাঘ মাসের শীতে জেলায় বিদ্যু চাহিদা কম থাকা সত্ত্বেও এ বছর লোডশেডিং চরম আকার ধারণ করেছেশুধু সন্ধ্যার পিক আওয়ারেই নয় সকাল থেকেই দিনভর অব্যাহত বিদ্যুতের লোডশেডিং চলছেশুধু জেলা শহরেই প্রতিদিন সকাল থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত সাত থেকে ১০ বার এক ঘণ্টা করে লোডশেডিং হচ্ছেউপজেলা সদরসহ পল্লী অঞ্চলে এ অবস্থা আরো ভয়াবহফলে বিদ্যুনির্ভর ইরি-বোরো সেচব্যবস্থায় বিপর্যয় নেমে এসেছে

 

জানা গেছে, গাইবান্ধা জেলাশহরে পূর্ব ও পশ্চিম দুটি ফিডারে ভাগ করে বিদ্যু সরবরাহ করা হয়ে থাকেএর মধ্যে আধুনিক হাসপাতাল ও সরকারি অফিস-আদালতসহ শহরের ব্যবসায়-বাণিজ্যের েেত্র গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় পশ্চিম ফিডার থেকে বিদ্যু সরবরাহ করা হয়

 

বিদ্যু উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদিন জেলায় বিদ্যুতের চাহিদা ১৬ মেগাওয়াট থাকলেও গ্রিড লাইন থেকে বিদ্যু পাওয়া যায় ৯ থেকে সাড়ে ৯ মেগাওয়াটপিক আওয়ারে এর পরিমাণ ৫ থেকে ৭ মেগাওয়াটে নেমে আসেজেলা শহর থেকে ২২ কিলোমিটার দূরে পলাশবাড়ী উপজেলা সদরের গ্রিড সাব স্টেশন থেকে গাইবান্ধায় বিদ্যু বিতরণ বিভাগের আওতায় বিদ্যু সরবরাহ করা হয়আর এ কারণেই এ জেলায় বিদ্যু বিভ্রাট সবচেয়ে বেশিএ জন্য জেলা সদরে একটি গ্রিড সাবস্টেশন স্থাপন করা অত্যন্ত জরুরিঅন্যথায় ভবিষ্যতে এ জেলায় বিভ্রাট তো কমবেই না, বরং তা বাড়বে বলে আশঙ্কা করছেন এলাকার লোকজন

 

নিউজরুম

 

শেয়ার করুন