‘ওরে, কসাই কাদেরের গলায় দড়িটা শক্ত করে লাগা!’

0
37
Print Friendly, PDF & Email

শাহবাগ (৬ফেব্রুয়ারী): ওরে, কসাই কাদেরের গলায় দড়িটা লাগা। দেখিস, যেন শক্ত করে লাগে—এভাবেই বন্ধুকে নির্দেশনা দিচ্ছেন এক তরুণ।তারা ব্যস্ত যুদ্ধাপরাধী কাদের মোল্লার ফাঁসি দিতে। শাহবাগের মোড়ে প্রতিটি রাস্তার সংযোগস্থলে একটি করে কাদের মোল্লা ঝুলছে, ল্যাম্পপোস্টেও। মাঝে মাঝে তার শরীরটা নড়ে উঠছে। উপস্থিত অনেকেই শান্তি পাচ্ছেন তা দেখে।

কাদেরের ফাঁসি দিয়েছেন তারা, তবে হাতের কাছে সত্যিকারের কাদেরকে না পেয়ে তার কুশপুতুলকে দড়িতে ঝুলিয়েই সান্ত্বনা খুঁজছেন।

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আবদুল কাদের মোল্লার ফাঁসির দাবিতে মঙ্গলবার থেকে শাহবাগ মোড়ে চলছে আন্দোলন। তরুণদের নেতৃত্বে রাজপথ অবরোধ করে এ দাবি জানাচ্ছেন সর্বসাধারণ।

তাদের কথার সারমর্ম একটাই, “কসাই কাদেরকে দড়িতে ঝুলেই মরতে হবে। তার পাপের এটাই সর্বনিম্ন শাস্তি।”

মোড়েই কাদের মোল্লার সবচেয়ে বড় কুশপুতুলকে বাঁশের ঘেরে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে রেখেছেন তারা। কুশপুতুলের গায়ে পরিচয় লেখা, “কসাই কাদের।”

নিজেদের মধ্যে আলাপেও কাদের মোল্লাকে ‘কসাই’ নামেই সম্বোধন করছেন তারা। এভাবেই যেন মনের ঝাল কিছুটা মেটানোর চেষ্টা।

জাতীয় পাতাকা হাতে নিয়ে সব শ্রেণী-পেশার মানুষের অংশগ্রহণে মানববন্ধন চলছে। স্লোগান দিচ্ছেন নানারকম।

তারা জানিয়ে দিচ্ছেন, কাদেরের ফাঁসির দাবিতে সংগ্রাম চলছে এবং চলবে। পরাজয়, আপোষ তারা মানবেন না বলেও সবাইকে সতর্ক করে দিচ্ছেন।

বারবার জানিয়ে দিচ্ছেন, কোনো ছাড় নেই যুদ্ধাপরাধ প্রসঙ্গে। মানবতাবিরোধী, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে কেউ ফাঁক রাখার চেষ্টা করলে তাদেরও ধরা হবে বলে সবার সোচ্চার উচ্চারণ।

জানিয়ে দিলেন, এক্ষেত্রে সরকারকেও ছাড় দেবেন না তারা। যুদ্ধাপরাধীদের প্রতি মায়া দেখালে কেউই ছাড় পাবে না বলে হুঁশিয়ার করে দিচ্ছেন আন্দোলনকারীরা।

নানা বিষয়ে নানা মত তাদের, তবে কাদের মোল্লার ফাঁসির বিষয়ে কারো কোনো দ্বি-মত নেই। বরং একেক জন মনে করিয়ে দিচ্ছেন, একবার ফাঁসি কাদেরের জন্য যথেষ্ট নয়। তবু এক ফাঁসিতেই যেহেতু মরে যাবে, বারবার ফাঁসি দেয়ার সুযোগতো থাকছে না।

নিউজরুম

শেয়ার করুন