নোয়াখালীতে বিএনপি নেতা এবং ঢাকায় পরিবহন কর্মচারি খুন

0
217
Print Friendly, PDF & Email

 

 

রুপসীবাংলা ডেস্ক: নোয়াখালীরচাটখিলেস্থানীয়একবিএনপিনেতাকেগুলিকরেহত্যাএবংপুরানঢাকারএকপরিবহনকর্মচারিকেছুরিমেরেহত্যা করেছেদুর্বৃত্তরা। নিহতনূরমোহাম্মদমিলনউপজেলারমোহাম্মদপুরইউনিয়নবিএনপিরসদস্যএবংস্থানীয়বানসাবাজারকমিটিরসভাপতিছিলেন।

 

বানসাগ্রামেরসিরাজুলইসলামেরছেলেমিলনস্থানীয়দেরকাছেডাক্তারমিলননামেপরিচিত।বাজারেতারওষুধকাপড়েরদোকানরয়েছে। স্থানীয়রাজানান, রোববাররাত৯টারদিকেবনসাবাজারেরউত্তরপাশেররাস্তারকাছেগুলিবিদ্ধঅবস্থায়মিলনকেপড়েথাকতেদেখেতাকেউদ্ধারকরেবাজারেনিয়েআসেনএকঅটোরিকশাযাত্রী।এরপরতাকেউপজেলাস্বাস্থ্যকমপ্লেক্সেনিয়েযাওয়াহলেচিকিৎসকমিলনকেমৃতঘোষণাকরেন।

চাটখিলথানারওসিমোস্তফাকামালজানান, ময়নাতদন্তেরজন্যমিলনেরলাশনোয়াখালীমেডিক্যালকলেজহাসপাতালেপাঠানোহয়েছে।অপরদিকেপুরান ঢাকার চকবাজারে এক পরিবহন কর্মচারিকে ছুরি মেরে হত্যা নোয়াখালীর চাটখিলে স্থানীয় এক বিএনপি নেতাকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

 

 

 

নিহতের খলিলুর রহমান (৩৫) ফালগুন পরিবহনের সুপারভাইজার ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি বাগেরহাটের সরনখোলার রাজৈর এলাকায় সোমবার ভোরে চকবাজার থানার হরণাথ ঘোষ রোড থেকে পুলিশ খালিলের রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে।
চকবাজার থানার ওসি মোহাম্মদ আলী জানান, নিহতের পকেটে একটি মোবাইল ফোন সেট দুই হাজার ৬শটাকা ছিল। ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে তার ওপর হামলা হয় বলে ধারণা করছে পুলিশ। খলিলের শরীরের ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে জানান তিনি।
নিহতের স্ত্রী নার্গিস বেগম পুলিশকে বলেছেন, ভোরে সায়েদাবাদে কর্মস্থলে যাওয়ার জন্য বাসা থেকে বের হন খলিল। পরে তিনি স্বামীর মৃত্যুর খবর পান।

আপলোড, ৪ফেব্রুয়ারী ২০১৩

 

     
 

 

 

 

 

শেয়ার করুন