মরলে শহীদ, বাঁচলে গাজী’ -খুলনা জামায়াত আমির

0
162
Print Friendly, PDF & Email

খুলনা (৩০জানুয়ারী) : সরকার পুলিশ বাহিনী দিয়ে সারা দেশে জামায়াত- শিবিরের মিছিলে অতর্কিত হামলা চালিয়ে নেতা-কর্মীকে আহত করছে বলে মন্তব্য করেন খুলনা মহানগর জামায়াতের আমির মাওলানা আবুল কালাম আজাদ।

তিনি বলেন, “জামায়াত শিবিরের নেতা-কর্মীকে মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার করা হচ্ছে। দেশের তৌহিদী জনতা এটি মেনে নেবে না।” তিনি নেতা- কর্মীদের সার্বক্ষণিক ময়দানে (রাজনীতির মাঠে)  থাকার আহবান জানিয়ে বলেন, “আমরা কোরআন হাদীস পড়েছি। আমাদের মৃত্যুর ভয় নেই। আমরা মরলে শহীদ, বাঁচলে গাজী।”  

খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ কর্তৃপক্ষের অনুমতির পর বুধবার দুপুর ৩টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত নগরীর সোনালী ব্যাংক চত্বরে মহানগর জামায়াতে ইসলামীর জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন।  

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচন, দলের নেতাদের মুক্তি এবং পুলিশি হয়রানির প্রতিবাদে এ জনসভার আয়োজন করা হয়। সমাবেশে বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে বিপুল সংখ্যক জামায়াত-  শিবিরকর্মীর উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।

এসময় নেতারা স্লোগান দিয়ে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের জন্য গঠিত ট্রাইব্যুনাল বাতিলের দাবি জানান।বিপুল সংখ্যক পুলিশি বেষ্টনীর মধ্যে এ জনসভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় জলকামানও মোতায়েন রাখতে দেখা যায়।

খুলনা মহানগর জামায়াতের আমির মাওলানা আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- মহানগর জামায়াতের নায়েবে আমির মাস্টার শফিকুর আলম, জেলা আমির মাওলানা ইমরান হোসেন, মহানগর জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি এ্যাডভোকেট শাহ আলম ও জাহাঙ্গীর আলম হেলাল, মহানগর শিবিরের সভাপতি সাইদুর রহমান সাইদ প্রমুখ।

জামায়াত নেতারা সরকারকে হুঁশিয়ার করে বলেন, “অবিলম্বে গ্রেফতার করা নেতাদের মুক্তি দেওয়া না হলে লাগাতার কর্মসূচি দিয়ে দেশ অচল করে দেওয়া হবে।”

নিউজরুম

শেয়ার করুন