খালেদাকে নির্বাচন থেকে সরিয়ে রাখার ষড়যন্ত্র হচ্ছে: ফারুক

0
431
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা (২৯জানুয়ারী) : বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে নির্বাচন থেকে সরিয়ে রাখার ষড়যন্ত্র হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিরোধী দলীয় চিপ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক।

মঙ্গলবার সকাল ১১টায় প্রেস ক্লাবের সামনে স্বাধীনতা ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটি আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, “খালেদা জিয়াকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে নির্বাচনে অযোগ্য করার ষড়যন্ত্র হচ্ছে। পাশাপাশি বিএনপির অনেক নেতাকে বিভিন্ন মিথ্যা মামলা দিয়েও নির্বাচনে অযোগ্য করার পথে এগুচ্ছে সরকার।”

“তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া যেহেতু বিএনপি নির্বাচনে যাবে না, সেহেতু এই ষড়যন্ত্র কখনও সফল হবে না।” বলেও মন্তব্য করেন ফারুক।

তিনি বলেন, “গণজোয়ারে কারাগারে বন্দি বিএনপি নেতারা বাইরে আসবেন। আর সেই জোয়ারে এই সরকারের পতন হবে।”

তিনি আরো বলেন, “বিএনপি হত্যা, খুনের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না। বিএনপি মানুষের স্বাভাবিক মৃত্যুর গ্যারান্টি চায়।”

তিনি অভিযোগ করেন,“ ইলিয়াস আলীর স্ত্রী কন্যার কান্না প্রধানমন্ত্রীর কান পর্যন্ত পৌঁছায় না। আর চৌধুরী আলমেরও কোন খোঁজ নেই।” তিনি বলেন, “এই সরকার খুন- গুম আর মামলা দিয়ে টিকে থাকতে চায়।”

সোমবার পুলিশের সঙ্গে জামায়াত-শিবিরের সংঘর্ষ সম্পর্কে জয়নুল আবদিন বলেন, “এটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা। এ জন্য দুঃখ প্রকাশ করতেই হয়। তবে ডিএমপি কমিশনার বেনজির আহমেদ যা বলেছেন তা নিন্দনীয়।”

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে তিনি অনুসরণ করেছেন বলেও অভিযোগ করেন ফারুক।

তিনি বলেন, “এমপিকে পেটানোর জন্য পুরস্কার দেওয়ার মত নিন্দনীয় কথা বলেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। একই পথ অনুসরণ করছেন ডিএমপি কমিশনারও।”ফোরামের সভাপতি আবু নাসের মু. রহমতুল্লাহর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বিএনপির শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন ছাড়াও বিএনপির সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

নিউজরুম

শেয়ার করুন