‘‘আ.লীগের দুই গুণ, লুটতরাজ-চুরি-চামারী ও মানুষ খুন’’

0
112
Print Friendly, PDF & Email

নয়াপল্টন (১২জানুয়ারী) : লুটতরাজ-চুরি-চামারী ও মানুষ খুনকে আওয়ামী লীগের গুণ হিসেবে অভিহিত করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস।

রোববার বিকেলে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে জাতীয়তাবাদী যুবদলের উদ্যোগে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে র‌্যালিপূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তার এ মন্তব্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক এক বক্তব্যের জবাব।উল্লেখ্য, শনিবার রাঙ্গামাটিতে এক জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অভিযোগ করে বলেন, ‘‘ বিএনপির দুই গুণ- দুর্নীতি ও মানুষ খুন।’’

মির্জা আব্বাস বলেন, ‘‘আওয়ামী লীগের দুইটি গুণ,  লুটতরাজ-চুরি-চামারী ও মানুষ খুন। এ দেশের মানুষ আজ তা হাড়ে হাড়ে উপলব্ধি করছে।’’

আব্বাস বলেন, ‘‘ অথচ প্রধানমন্ত্রী উল্টো দোষারোপ করছেন বিএনপিকে। এভাবে নিজেদের দোষ অন্যের ঘাড়ে চাপিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করছেন তিনি।’’

বক্তব্যে বিরোধী দলের ওপর পুলিশের দমনপীড়নের চিত্র তুলে ধরে সাবেক মন্ত্রী মির্জা আব্বাস বলেন, ‘‘একটি বিশেষ জেলার পুলিশ সদস্যদের দিয়ে আমাদের নেতা-কর্মীদের ওপর নির্যাতন চালানো হচ্ছে। গ্রেপ্তার করে অনেককে কারাগারে বন্দি করে রাখা হচ্ছে।’’

এ থেকে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও রেহাই পাননি বলে অভিযোগ করেন এই নেতা।  

তিনি বলেন, ‘‘আমরা স্পষ্টভাষায় বলতে চাই- পাকিস্তানের আইয়ুব খান- ইয়াহিয়া খানও পুলিশ দিয়ে আন্দোলন দমাতে পারেনি। নির্দলীয় সরকারের গণআন্দোলনও বর্তমান সরকার দমাতে পারবে না।’’

মির্জা আব্বাস বলেন, ‘‘ সরকারকে বলছি, এখনো সময় আছে, নির্দলীয় সরকারের দাবি মেনে নিন। নইলে জনগণের আন্দোলনের জোয়ারে আপনারা পার পাবেন না।’’

যুবদলের সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলালের সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত র‌্যালিপূর্ব সমাবেশে যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম নিরবও বক্তব্য রাখেন।

র‌্যালিতে সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতা আবদুস সালাম আজাদ, সেলিমুজ্জামান সেলিম, মোরতাজুল করীম বাদরু, আবদুল বারী ড্যানি, মীর নেওয়াজ আলী, জাকারিয়া মঞ্জুর, রফিকুল আলম মজনু, মামুন হাসান, এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

নিউজরুম

শেয়ার করুন