সাংবাদিকদের নিরাপত্তার দায়িত্ব রাষ্ট্রের : তথ্যমন্ত্রী

0
42
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা (২৭জানুয়ারী): তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, এখনো সাংবাদিকরা ঝুঁকির মধ্যে থেকে কাজ করছেন। অনেক সাংবাদিক খুন হয়েছেন। অনেক মামলা এখনো সুরাহা হয়নি।  সাংবাদিকদের নিরাপত্তা ও মর্যাদা রক্ষা করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব। তাদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত হবে, গণতন্ত্রের ভিত তত মজবুত হবে। কিন্তুএটি গণতন্ত্রের জন্য লজ্জার। আমার দফতর থেকে এই লজ্জা দূর করার চেষ্টা করছি।
রোববার দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) নিহত সাংবাদিক পথিক সাহার স্মরণসভায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। পথিক ডিআরইউ’র সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ৪৫ বছর বয়সে ২০১১ সালের ২৯ জানুয়ারি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি মারা যান। তখন তিনি বাংলাদেশ প্রতিদিনের প্রধান প্রতিবেদক ছিলেন।

পথিকের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলে সভার আয়োজন করে ডিআরইউ।
সম্প্রতি র‌্যাব ও পুলিশ প্রশাসনের লোকজন সাংবাদিকদের সঙ্গে আপত্তিজনক আচরণ করেছেন উল্লেখ করে হাসানুল হক ইনু বলেন, এসবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। পথিক সাহার স্ত্রীর চাকরি স্থায়ীকরণ এবং তার সন্তানের জন্য প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দেয়ার আশ্বাস দেন তথ্যমন্ত্রী।
ডিআরইউ’র সভাপতি সাহেদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য দেন ইনকিলাবের নগর সম্পাদক জাকারিয়া কাজল, ডিআরইউ’র সাবেক সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন বাদশা, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন লিটন ও সাজ্জাদ আলম খান তপু, পথিক সাহার বড় ভাই প্রণয় সাহা, ভগ্নিপতি আশিষ কুমার দে ও মলয় সাহা, ইন্ডিপেনডেন্ট টিভির সাংবাদিক শাহাবুদ্দিন চৌধুরী এবং ডিআরইউ সমবায় সমিতির সভাপতি মাহমুদুর রহমান খোকন।

সৌদি কূটনীতিক খালাফ হত্যার বিচার হলে সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যার বিষয়টির কেন এখনো ঝুলে আছে সে বিষয়ে মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন বক্তারা। জবাবে হাসানুল হক ইনু বলেন, আমি দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে সাগর-রুনি হত্যার সুষ্ঠু বিচারের জন্য তদবির করছি।

এছাড়া বক্তারা পথিক সাহার নামে ডিআরইউ’র মিলনায়তন অথবা সংগঠনের একটি স্থাপনার নামকরণের জন্য নেতাদের প্রতি অনুরোধ জানান।

নিউজরুম

শেয়ার করুন