ঝর্ণা ধারা চৌধুরীকে ‘পদ্মশ্রী’ খেতাবে ভূষিত

0
56
Print Friendly, PDF & Email

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক(২ জানুয়ারী): সমাজকর্মের জন্য ভারত সরকারের পদ্মশ্রীখেতাবে ভূষিত হলেন বাংলাদেশেরগান্ধী আশ্রম ট্রাস্টের সচিব ঝর্ণা ধারা চৌধুরীগত শুক্রবার ভারতেরস্বরাষ্ট্রসচিব টেলিফোনে তাঁকে এ স্বীকৃতির খবর দেন বলে জানিয়েছেন এইবিশিষ্ট সমাজকর্মী
এ বছর ভারত ছাড়াও বিভিন্ন দেশের ৮০ জনকে পদ্মশ্রীপুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয়েছেএর মধ্যে ঝর্ণা ধারা চৌধুরী একমাত্রবাংলাদেশিপদ্মশ্রী ভারত সরকারের চতুর্থ সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান
সম্মানজনকএ স্বীকৃতির খবর ছড়িয়ে পড়লে গতকাল শনিবার সকাল থেকে নোয়াখালীর গান্ধীআশ্রম ট্রাস্টে ঝর্ণা ধারা চৌধুরীকে শুভেচ্ছা জানাতে ভক্ত, অনুরাগীসহবিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ সমবেত হন
১৯৫৪ সালে নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীউপজেলার জয়াগে প্রতিষ্ঠিত গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টের সঙ্গে যুক্ত হন ঝর্ণাধারা চৌধুরীএ ট্রাস্ট নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী ও কুমিল্লা অঞ্চলেরপ্রায় ১২ লাখ দরিদ্র মানুষের আর্থসামাজিক উন্নয়নের প্রচেষ্টার পাশাপাশিশান্তি, সম্প্রীতি ও অহিংসা প্রসারের লক্ষ্যে কাজ করে
চট্টগ্রামেরপ্রবর্তক সংঘের শিক্ষিকা এবং অনাথালয়ের তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে ঝর্ণা ধারাচৌধুরীর মানবসেবা শুরু হয়১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে প্রবর্তক সংঘেরপ্রায় ৫০০ শিশু ও কিশোরীকে তিনি পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর হাত থেকেবাঁচাতে ভারতের আগরতলা নিয়ে যান
ঝর্ণা ধারা চৌধুরী এর আগে ১৯৯৮ সালেআন্তর্জাতিক বাজাজ পুরস্কার, ২০০০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ওল্ড ওয়েস্টবেরিবিশ্ববিদ্যালয়ের শান্তি পুরস্কার, ২০০৩ সালে দুর্বার নেটওয়ার্ক পুরস্কার, ২০১০ সালে শ্রীচৈতন্য পদক, একই বছর চ্যানেল আই ও স্কয়ার কীর্তিমতী নারীপুরস্কার এবং ২০১১ সালে গান্ধী স্মৃতি শান্তি সদ্ভাবনা পুরস্কারে ভূষিত হনতাঁর জন্ম ১৯৩৮ সালের ১৫ অক্টোবর লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলায়চট্টগ্রামের খাস্তগীর বালিকা উচ্চবিদ্যালয় থেকে ম্যাট্রিকুলেশন ও ঢাকা কলেজথেকে স্নাতক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন তিনি

 

নিউজরুম

 

শেয়ার করুন