সংসদে এসে কথা বলুন, সেন্সর ছাড়াই বক্তব্য প্রচার হবে: সুরঞ্জিত

0
433
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা (২৬জানুয়ারী) : সংসদে এসে কথা বলুন, রেডিও-টেলিভিশনে সেন্সর ছাড়াই বক্তব্য প্রচার হবে বলে বিরোধী দলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও দপ্তরবিহীন মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত।

শনিবার দুপুরে শিল্পকলা একাডেমির মহড়া কক্ষে গ্রেনেড হামলায় নিহত সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এস.এম.এস কিবরিয়ার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, “পার্লামেন্টকে জিম্মি করলেই সরকার পড়ে যাবে না। তাই আলোচনার জন্য সংসদে আসুন। সংসদে এসে কথা বলুন, রেডিও-টেলিভিশনে সেন্সর ছাড়া বক্তব্য প্রচার হবে। এর মাধ্যমে জনগণই বিচার করবে আগামীতে কাকে নির্বাচিত করা যায়।”

সুরঞ্জিত বলেন, “বন্যেরা বনে সুন্দর, শিশুরা মাতৃক্রোড়ে। বিএনপি মহাসচিবকে আমরা তার রাজনৈতিক অফিসে দেখতে চাই। তেমনি বিরোধীদলের নেতাকে বিরোধীদলীয় নেতার আসনে দেখতে চাই।”

তিনি বলেন, “সত্যিই বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব কাশিমপুরে থাকবেন কেন? কেনইবা বিরোধী নেত্রী কাঠগড়ায় যাবেন। এ বিষয়গুলো নিয়ে বাইরে কথা না বলে সংসদে এসে বলুন। সংসদে সবাই মিলে আলোচনা করে সাংবিধানিক অবস্থান ঠিক করতে হবে।”

তিনি আরো বলেন, “বিরোধীদলীয় নেতাই হোক বা পার্লামেন্ট নেতাই হোক আমরা কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নই। এ বিষয়গুলো ঠিক করতে আলোচনা অপরিহার্য হয়ে পড়েছে। আমাদের মিলে ঠিক করতে হবে, আমরা গণতান্ত্রিক সংস্কৃতি অনুশীলন করব কি না। বক্তব্যকে আক্রমণাত্বক ও সংঘর্ষপূর্ণভাবে না দিয়ে গণতান্ত্রিক উপায়ে অন্যভাবে বলা যায় কি না তা ঠিক করতে হবে।”

বিচারের দায়িত্ব বিচারকের হাতে ছেড়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে সুরঞ্জিত বলেন, “বিরোধী দলীয় মহাসচিবকে আদালত জামিন দিচ্ছে না। এর জবাব কি সরকার দেবে না স্বাধীন বিচার ব্যবস্থা থেকে এর জবাব পাওয়া যাবে।”

জোটের সহ-সভাপতি মোবারকের আলী শিকদারের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন, অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান, কৃষক লীগের সহ-সভাপতি এম এ করিম, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা প্রমুখ।

নিউজরুম

শেয়ার করুন