“বিএনপি সরকার ক্ষমতায় এসে শুধু খাম্বা বসায়”: প্রধানমন্ত্রী

0
136
Print Friendly, PDF & Email

খুলনা (২৪জানুয়ারী) : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সরকারের চার বছরে দেশের উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরে ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট দেওয়ার জন্য খুলনাবাসীর প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় খুলনার ঐতিহাসিক সার্কিট হাউজ মাঠের জনসভায় প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এ আহ্বান জানান। খুলনা জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ এ জনসভার আয়োজন করে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “বর্তমান সরকারের শাসনামলে দেশের মানুষ শান্তিতে আছে। সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতি নেই। ফলে আগামীতে শান্তিতে থাকার জন্য আওয়ামী লীগকে নির্বাচিত করার আহ্বান জানাই।” প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ক্ষমতায় গিয়ে ২০২১ সালে স্বাধীনতার রজত জয়ন্তী পালন করবো।”

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, “খুলনা নগরবাসীর উন্নয়নে এক হাজার কোটি টাকার বিভিন্ন প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। জলাবদ্ধতা নিরসন, খাল খনন এবং পাকা রাস্তা নির্মাণের জন্য আরও ৪শ’ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।’’

বিএনপি সরকারের সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “বিএনপি সরকারের আমলে এ অঞ্চলের কল-কারখানা বন্ধ হয়েছে। আমরা চালু করেছি। অচল মংলা বন্দর সচল করার জন্য নিজস্ব ড্রেজার কেনা হয়েছে। বিদ্যুৎ সংকট নিরসনের জন্য রামপালে কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণাধীন। ’৯৬ সালে আমরা ক্ষমতায় এসে খুলনায় একটি বেসরকারি পাওয়ার প্লান্ট স্থাপনও করি।”

তিনি বলেন, “বিএনপি সরকার ক্ষমতায় এসে শুধু খাম্বা বসায়। আওয়ামী লীগ এবারে ক্ষমতায় এসে সাড়ে ৬ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে সক্ষম হয়েছে। খুলনা মহানগরবাসীর পানির সংকট নিরসনের জন্য ওয়াসায় বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ২৫ কোটি টাকা।’’ তিনি বলেন, “খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, কুয়েট ও মেডিকেল কলেজে ছাত্রাবাস নির্মাণ করা হয়েছে। শ্রমিকদের স্বার্থে আবার জুট মিল চালু করা হল। বিএনপি সরকারের আমলে বন্ধ হওয়া শিপইয়ার্ডে এখন যুদ্ধ জাহাজ তৈরি হচ্ছে।”

শেখ হাসিনা বলেন, “দক্ষিণাঞ্চলের খাদ্য বৃদ্ধির জন্য লবণ সহিষ্ণু ধান উৎপাদন করা হচ্ছে। খুলনা ও বরিশাল বিভাগে আর  খাদ্যাভাব থাকবে না। দেশে এবার ৩ কোটি ৪০ লাখ মেট্রিক টন খাদ্য উৎপাদিত হয়েছে। উচ্চ শিক্ষার সুযোগের জন্য শিক্ষার্থীদের হাতে বিনামূল্যে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে ২৭ কোটি বই। দেশের বেকার যুবকরা মাত্র ৪০ হাজার টাকায় মালয়েশিয়ায় যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন।” আগামী নির্বাচনের পর ক্ষমতায় গিয়ে ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্র্যমুক্ত, সন্ত্রাসমুক্ত এবং জঙ্গিবাদমুক্ত বাংলাদেশ গড়বেন বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী খুলনার ১২টি উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করেন। জনসভায় সভাপতিত্ব করেন খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।
অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রফেসর ডা. আ ফ ম রুহুল হক, যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান, সংসদ সদস্য বিএম মোজাম্মেল হোসেন, মোল্লা জালাল উদ্দিন, ননী গোপাল মণ্ডল ও সোহরাব আলী সানা, প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব সাইফুজ্জামান শেখর, খুলনা জেলা পরিষদের প্রশাসক শেখ হারুনুর রশিদ, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা রশিদী সুজা প্রমুখ। 

নিউজরুম

শেয়ার করুন