রাজশাহীতে চাঁদাবাজির দায়ে কথিত সাংবাদিক আটক

0
112
Print Friendly, PDF & Email

রাজশাহী (২৩জানুয়ারী) : রাজশাহীতে সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজির সময় স্থানীয়রা ইমদাদুল হক (৩০) নামে এক যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে ।

গুলজার বেগম নামে এক মহিলার কাছ থেকে চাঁদা নেওয়ার সময় তাকে হাতেনাতে আটক করা হয়। সে নওরোজ পত্রিকার রাজশাহী ব্যুরো প্রধান বলে পুলিশের কাছে পরিচয় দিয়েছে।  এছাড়াও তার কাছে আরও ৪টি পত্রিকার পরিচয়পত্র পাওয়া গেছে।

এ সময় তার কাছ থেকে চাঁদাবাজির নগদ ২০ হাজার টাকা জব্দ করে পুলিশ।

ইমদাদুল রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার চককৃষ্ণপুর গ্রামের মৃত ইব্রাহিম আলীর ছেলে। মঙ্গলবার রাতে মহানগরীর রেলওয়ে কোয়ার্টার থেকে তাকে আটক করা হয়।

গুলজার বেগম জানান, ইমদাদুল হক সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে তার (গুলজারের) একান্ত পারিবারিক ঘটনাকে পুঁজি করে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। বিভিন্ন সময় ওই ঘটনা পত্রিকায় ফাঁস করে দেওয়ার ভয় দেখায়। চাঁদা না দিলে বিভিন্ন সমস্যা হবে বলে জানায়।

মহানগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়াউর রহমান জানান, কথিত সাংবাদিক ইমদাদুলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় চাঁদা আদায়ের অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে দুর্গাপুর থানায়।

২০০৭ সালে তার নামে দুর্গাপুর থানায় একটি চাঁদাবাজির মামলা হয়। ২০০৮ সালে আরও একটি মামলা হয় ওই থানায়। পরে সে উপজেলা থেকে গা ঢাকা দিয়ে মহানগরীতে চলে যায়।

মহানগরীতে যাওয়ার পর থেকে সে রেলওয়ে কোয়ার্টার এলাকায় দৈনিক নবজাগরণসহ বেশ কয়েকটি অপরিচিত পত্রিকার পরিচয়পত্র সংগ্রহ করে। পরে রেল কোয়ার্টার এলাকার একটি ভবনে রাজশাহী ব্যুরো অফিসের সাইন বোর্ড লাগায়। সেখান থেকেই চাঁদা আদায়ের কাজ চলতো।

ওসি জানান, ভুক্তভোগী ওই নারীর অভিযোগের পর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রেলওয়ে কোয়ার্টার এলাকায় চাঁদা আদায়কালে হাতেনাতে স্থানীয়রা তাকে আটক করে। পরে মহানগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে তাকে আটক করে। মামলা দায়েরের পর তাকে আদালতে পাঠানো হবে বলে জানান ওসি।

নিউজরুম

শেয়ার করুন