নির্বাচন নয়, তত্ত্বাবধায়কের দাবিতে আন্দোলন: তরিকুল

0
88
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা (১৯জানুয়ারী) : এই মূহুর্তে নির্বাচন নয়, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে আন্দোলনের কথা ভাবছে বিএনপি। এ মন্তব্য বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলামের। শনিবার সকালে শেরেবাংলানগরে ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা জানাতে এসে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

এ সময় “দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের ষড়যন্ত্র থেকে সরে না এসে সরকার জনগণকে বিভ্রান্ত ও নির্বাচনমুখী করতে সিটি করপোরেশন ও উপজেলা নির্বাচনের কথা বলছে বলেও অভিযোগ করেন তরিকুল।  

তিনি বলেন, “একদলীয় নির্বাচনের ষড়যন্ত্র থেকে সরকার আগের অবস্থান থেকে ফিরে আসেনি। কিন্তু আমরা নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন চাই। এতো দিন যেটি হয়ে আসছে। কিন্তু সরকার তাদের ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে সিটি করপোরেশন ও উপজেলা নির্বাচন করতে চায়। কিন্তু সরকারের এ ষড়যন্ত্র সফল হবে না।”

মইনউদ্দিন-ফখরুদ্দীন তত্ত্বাবধায়ক নয়, সেনা সমর্থিত অবৈধ সরকার ছিল বলেও মন্তব্য করেন তিনি। তরিকুল অভিযোগ করেন, “সম্প্রতি চট্টগ্রামের উপ-নির্বাচনে ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে যায়নি, নির্বাচন কমিশন ফলস ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে জিতিয়ে দিয়েছে।”

বিরোধী দলের উপর নির্যাতনকারী কর্মকর্তাদের সরকার পুরস্কৃত করছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, “এডিসি হারুন বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুকের উপর হামলা চালিয়ে তাকে রক্তাক্ত করে দিয়েছেন, বিশ্বজিৎ হত্যার সময় দায়িত্বে থাকলেও তাকে তিনি বাঁচাতে আসেন নি। অথচ সরকার তাকে পিপিএম পুরস্কার দিয়েছে।”

বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের উপর নির্যাতন করতে পুলিশ কর্মকর্তাদের সরকার উস্কানি দিচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। পিপার স্প্রে বন্ধের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, “মানুষ মারার কারিগর শিক্ষকদের উপর এটা নিক্ষেপ করা হচ্ছে। একজন শিক্ষকের মৃত্যুও হয়েছে। আইন ও শালিশ কেন্দ্র এটার ব্যবহার বন্ধের কথা বলছে। আমরাও সরকারকে দ্রুত পিপার স্প্রে বন্ধের দাবি জানাচ্ছি।”

পিপার স্প্রে’র কারণে যে শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে তার দায় আজ হোক আর কাল হোক সরকারকে নিতে হবে বলেও সতর্ক করেন তরিকুল। দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা ও গণতন্ত্র রক্ষা এখন বিএনপির জন্য চ্যালেঞ্জ বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

নিউজরুম

শেয়ার করুন