কৃষকদের প্রতিবাদ

0
96
Print Friendly, PDF & Email

কৃষি ডেস্ক(১০ জানুয়ারী): নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার পাঁচটি গ্রামের কৃষকদের কয়েক শ বিঘা ইরি ওবোরো ধানের জমির মাটি সন্ত্রাসী চক্র জোরপূর্বক কেটে ইটভাটায় বিক্রি করেদেওয়ার অভিযোগ করেছেন স্থানীয় কৃষকেরাস্থানীয় প্রশাসনকে বারবার জানানোসত্ত্বেও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ না নেওয়ায় গতকাল বুধবার কৃষকেরা আমরণ অনশন ওসড়ক অবরোধসহ চার দিনের আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন
স্থানীয় কৃষকদেরসূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় একটি সন্ত্রাসী চক্র ক্ষমতাসীনদলের নামে উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের কাহেনা, পেরাব, সিংলাব, রাউতগাঁও ওপাকুন্দা গ্রামের কয়েক হাজার কৃষকের ইরি ও বোরো ধানের ফসলি জমির মাটিজোরপূর্বক কেটে স্থানীয় দুটি ইটভাটায় বিক্রি করে দিচ্ছেসন্ত্রাসীরাইতিমধ্যে কৃষকদের ৩০০ বিঘা জমির মাটি কেটে নিয়ে গেছে
জমি থেকে মাটিকেটে নেওয়ার ব্যাপারে গত ১২ ডিসেম্বর কৃষকদের পক্ষ থেকে হাইকোর্টে একটি রিটপিটিশন করা হয়আদালত এ রিটের পরিপ্রেক্ষিতে সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহীকর্মকর্তা ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে ওই এলাকার কৃষকদের জমি থেকে মাটিকাটা বন্ধ করে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্যবলা হয়
তবে হাইকোর্টের এ নির্দেশ অমান্য করেই মাটি কাটা অব্যাহত রয়েছেপ্রতিবাদে কৃষকেরা গতকাল বুধবার আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা করেনকৃষকদেরকর্মসূচির মধ্যে রয়েছে ১৫ জানুয়ারি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসেরসামনে বিক্ষোভ ও ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ১৬ জানুয়ারি জেলা প্রশাসক ওপুলিশ সুপারের কার্যালয় ঘেরাও, ১৭ জানুয়ারি ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনেমানববন্ধন, ১৮ জানুয়ারি মাটি কাটার সঙ্গে জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার নাকরা পর্যন্ত জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে কাফনের কাপড় পরে আমরণ অনশন
কৃষকেরা জানান, সরকার ব্রিকস ও এফআরআর অটো ব্রিকস ইটভাটা দুটি মাটি কিনে ইট তৈরি করলেও তাদের কোনো লাইসেন্স নেই
এফআরআরইটভাটার মালিকের সঙ্গে যোগাযোগ করেও তাঁকে পাওয়া যায়নিনারায়ণগঞ্জের জেলাপ্রশাসক মনোজ কান্তি বড়াল জানান, অনুমোদনবিহীন ইটভাটাকে কোনো অবস্থাতেইব্যবসা করতে দেওয়া হবে না

নিউজরুম

শেয়ার করুন