টাঙ্গাইলে ছাত্রী নির্যাতনে মনে হয় বাংলার ওপর নির্যাতন: কাদের সিদ্দিকী

0
150
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা (০৭জানুয়ারী) : ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) চিকিৎসাধীন টাঙ্গাইলের মধুপুরে নির্যাতিত ছাত্রীটিকে দেখতে এসে বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী মন্তব্য করেছেন, টাঙ্গাইলে মেয়েটির ওপর নির্যাতন মানে বাংলার ওপর নির্যাতন।

তিনি বলেন, “আমি মনে করি, এ ঘটনায় সাংবাদিক সমাজ সচেতন না হলে নির্যাতিত মেয়েটির যে কী অবস্থা হতো, তা ভাবতে গেলেও আমার শরীর শিউরে ওঠে।”

সোমবার সকাল ১১টা ২০ মিনিটে ঢামেকে নির্যাতিত মেয়েটিকে দেখে এসে সাংবাদিকদের কাছে কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তম এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, “এ ঘটনায় মনে হয়েছে, আমার দেশের মানুষের কোনো অস্ত্বিত্ব নেই। এ নির্যাতিত মেয়েটি সঠিক বিচার পাবে বলে আমার মনে হয়না।”  

কারণ হিসেবে উল্লেখ করে কাদের সিদ্দিকী বলেন, “যখন রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক কিংবা শিক্ষকের রিমান্ড চাওয়া হয়, তখন ১০ দিন কিংবা ৭ দিন রিমান্ড মঞ্জুর হয়। কিন্তু এ ঘটনার মূল হোতা বীথির মাত্র ১ দিন রিমান্ড মঞ্জুর হয়েছে।”

তিনি এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, “এ ঘটনার পর মনে হচ্ছে, নারী এখন নারীর শত্রু হয়ে দাঁড়িয়েছে।”

বঙ্গবীর এসময় সাংবাদিক সমাজের প্রশংসা করে বলেন, “সাংবাদিকরা সচেতন থাকায় নির্যাতিত মেয়েটি ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছে। মেয়েটির ওপর নির্যাতনকে আমি মনে করছি, পুরো বাংলার ওপর নির্যাতন।”

এর পর দুপুর ১২টা ২০ মিনিটে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ত্যাগ করেন কাদের সিদ্দিকী।

শেয়ার করুন