‘সরকারের এজেন্টরাই গাড়ি পুড়িয়ে বিরোধী দলের ওপর দোষ চাপাচ্ছে’

0
106
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা (৬জানুয়ারী) : ১৮ দলের ডাকা রোববারের হরতালের প্রাক্কালে ও হরতাল চলাকালীন সময়ে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে যানবাহনে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় বিএনপির সংশ্লিষ্টতা উড়িয়ে দিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম।

হরতালে গাড়ি পোড়ানোর অভিযোগ অস্বীকার করে তরিকুল ইসলাম বলেন, “সরকারের এজেন্টরাই গাড়ি পুড়িয়ে বিরোধী দলের ওপর দোষ চাপাচ্ছে। তাদের উদ্দেশ্য জোটের নেতাকর্মীদের আরও বেশি করে হয়রানি করা।”

তিনি বলেন, “এখন পর্যন্ত এ সব অভিযোগে যাদের আটক করা হয়েছে তাদেরকেও মিথ্যা মামলা দিয়ে আটক করা হয়েছে।”

সরকারের চতুর্থ বছর পূর্তি উপলক্ষে করা প্রশ্নের জবাবে তরিকুল ইসলাম বলেন, “সরকারের এই চার বছরে গুম হয়েছে ১৫৬টি। অসংখ্য নেতাকর্মী আহত ও কারাবন্দী।”

সরকারের উদ্দেশ্যে আহবান জানিয়ে তিনি বলেন,“নিজেদের জনপ্রিয়তা যাচাই করতে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন, তাহলেই বুঝতে পারবেন জনগণ কী চায়।”

রোববারের হরতালকে সফল দাবি করে তিনি বলেন, “আমরা গরীবদের মারতে চাই না, তাই রিকশা চলতে বাধা দেওয়া হচ্ছে না। আমাদের হরতাল জনমানুষের স্বার্থে । যে ইস্যুতে কর্মসূচি দিয়েছি তা জনগণের মনের দাবি। তাই এ হরতালে জনগণ আমাদের সঙ্গে একাত্ম।”

হরতাল চলাকালে সকাল সোয়া দশটার দিকে বিএনপির নয়াপল্টনের কার্যালয়ের ফটকে বসে সাংবাদিকদের করা বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা বরকত উল্লাহ বুলু, চিফ হুইপ জয়নুল আবদীন ফারুক, সাবেক ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন ও ছাত্রদলের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু প্রমুখ।

এদিকে তরিকুল ইসলামের বক্তব্য শেষ হওয়ার একটু পরই নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে একজনকে আটক করে পুলিশ। তবে পুলিশ দ্রুত তাকে আটক করে ভ্যানে তুলে নিয়ে যাওয়ায় তার পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

নিউজরুম

শেয়ার করুন