অস্বাভাবিক হারে বাড়ানো বাড়িভাড়া নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজন আইনি উদ্যোগ

0
102
Print Friendly, PDF & Email

৬ জানুয়ারি, ২০১৩

শহুরে মানুষের জীবনযাত্রার ব্যয় অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে গেছে। বিশেষ করে খাদ্যবহির্ভূত ব্যয় বাড়ছে নিয়ন্ত্রণহীনভাবে। এর মধ্যে বাড়িভাড়া বাড়ছে রকেট গতিতে। মধ্যবিত্ত বা নিম্নœমধ্যবিত্ত একটি পরিবারের আয়ের অর্ধেকের বেশি চলে যাচ্ছে বাড়িভাড়া দিতে। খাদ্য, শিক্ষা, চিকিৎসার ব্যয় কমিয়ে বাসস্থানের জন্য বেশি ব্যয় করতে হচ্ছে। মানুষ এক উপায়হীন অসহনীয় অবস্থায় পড়েছে। কিন্তু তাদের স্বার্থ দেখার কেউ নেই।

বছরের শুরুতে নতুন করে বাড়িভাড়া বাড়ছে। আট হাজার থেকে ২০ হাজার টাকার একটি বাসার ভাড়া বেড়েছে কমপক্ষে এক হাজার টাকা। অথচ এসব বাসায় যারা থাকেন তাদের বার্ষিক আয় এক হাজার টাকা বাড়ে না। ফলে স্বাভাবিকভাবে নিত্যদিনের খরচ থেকে এই টাকা দিতে হয়। এক পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে, প্রতি বছরই বাড়িভাড়া গড়ে ১৬ শতাংশ বাড়ছে। গত পাঁচ বছরে অনেক ক্ষেত্রে ভাড়া বেড়ে দ্বিগুণের বেশি হয়েছে। যে বাড়ির ভাড়া ছিল পাঁচ হাজার টাকা, পাঁচ বছরের ব্যবধানে সেই বাড়ির ভাড়া বেড়েছে ১২ হাজার টাকা।

এই যে বাড়িভাড়া বাড়ানো হচ্ছে, তা তদারকির কেউ নেই। এমনকি নাগরিকদের স্বার্থ রক্ষার জন্য কোনো আইন নেই। আশ্চর্যজনক ব্যাপার হচ্ছে, রাজধানীর বাড়িগুলোর কর আদায় করে থাকে ঢাকা সিটি করপোরেশন। অনেক নাগরিকসেবা দেয়ার সাথেও ঢাকা সিটি করপোরেশনের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে, কিন্তু নাগরিকদের কাছ থেকে বাড়ির মালিকেরা কিভাবে ভাড়া আদায় করছেন, তা তদারকি করছে না সিটি করপোরেশন। সে সংক্রান্ত কোনো আইন বা জনবলও নেই। বাড়িভাড়া নিয়ন্ত্রণে একটি আইন পাস করা হয়েছে ১৯৯১ সালে কিন্তু সেই আইন এখন পর্যন্ত কার্যকর করা সম্ভব হয়নি। কারণ এই আইনটি কারা বাস্তবায়ন করবে তা উল্লেখ করা হয়নি।

প্রকৃতপক্ষে রাজধানীতে বাড়িভাড়া বাড়ানো বাড়ির মালিকদের একটি খামখেয়ালির বিষয়ে পরিণত হয়েছে। অথচ বাড়িভাড়ার ক্ষেত্রে শুধু সিটি করপোরেশন নয়, আয়কর কর্মকর্তাদেরও বিশেষ দৃষ্টি দেয়া উচিত ছিল। কোন ধরনের বাড়ি থেকে কত টাকা আয় হবে তার ওপর কত টাকা বাড়ির মালিকেরা আয়কর দেবেন তা-ও নির্ধারণ করে দেয়া উচিত। তাতে শুধু বাড়িভাড়া সুষম ও নিয়ন্ত্রণ হবে না সরকারের রাজস্ব আয়ও বাড়বে। এ কথা স্বীকার করতে হবে।

গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির দাম যেভাবে বাড়ছে তাতে বাড়িভাড়া বাড়বে এটা স্বাভাবিক কিন্তু ভাড়া বাড়ানোর হার যেন অস্বাভাবিক না হয় সে দিকে বাড়ির মালিক ও সরকারের দৃষ্টি রাখা উচিত। আমরা আশা করব, সরকার বাড়িভাড়া নিয়ন্ত্রণের আইন দ্রুত কার্যকর করার উদ্যোগ নেবে।

শেয়ার করুন