‘ছাত্রলীগের অপকর্ম মাথা নিচু করে দিয়েছে’ : যোগাযোগ মন্ত্রী

0
90
Print Friendly, PDF & Email

ঢাবি ( ৪ জানুয়ারী) : ছাত্রলীগের অপকর্ম ক্ষমতাসীনদের মাথা নিচু করে দিয়েছে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি।

শুক্রবার দুপুরে ছাত্রলীগের ৬৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

ছাত্রলীগের বেশ কিছু সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডের কঠোর সমালোচনা করে সংগঠনটির সাবেক এই সভাপতি বলেন,  “ছাত্রলীগের ৬৫ বছরের গৌরবের ইতিহাস যেমন আমাদের মাথা উঁচু করে, তেমনি ছাত্রলীগের সাম্প্রতিককালের কিছু অপকর্ম আমাদের মাথা নিচু করে দিয়েছে।”

এ সময়  “কিছু হাইব্রিড ও ফরমালিন’ ঢুকে ছাত্রলীগে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে বলে অসন্তোষ প্রকাশ করেন যোগাযোগ মন্ত্রী।

আত্মসমালোচনার মাধ্যমে ছাত্রলীগের অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখা দরকার বলে মত প্রকাশ করে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, “আমরা যারা সরকারে আছি তারা ডিজিটাল উন্নয়ন করবো। আর তোমাদের (ছাত্রলীগ) আচরণ হতে হবে এনালগ। কেননা, এনালগ আচরণের মধ্যে সৌজন্যবোধ ও মূল্যবোধ রয়েছে।”

“বিভিন্নভাবে ছাত্রলীগ সর্ম্পকে নেতিবাচক অপপ্রচার চালানো হচ্ছে” মর্মে দেওয়া ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজুমল আলমের বক্তব্যেরও সমালোচনা করেন ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, “সমালোচনা তিতা হবে এটা স্বাভাবিক। ইতিবাচক কাজের মাধ্যমে নেতিবাচক প্রচারের জবাব দিতে হবে।”

দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি সম্পর্কে তিনি বলেন, “দেশের রাজনীতিতে আক্রোশ ও আক্রমণ  ফরমালিনের চেয়েও মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। রাজনীতিতে সৌজন্যতাবোধ ফিরিয়ে আনতে হবে।”

ছাত্রলীগ সভাপতি এইচএম বদিউজ্জামান সোহাগের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলমের সঞ্চালনায় সমাবেশে আরো ছিলেন-  স্থানীয় সরকার ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক, আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, নজরুল ইসলাম এমপি, বাহাদুর ব্যাপারী, সাবেক সভাপতি আব্দুল মান্নান, মাঈনউদ্দিন হাসান চৌধুরী, এনামুল হক শামীম, মাহমুদ হাসান রিপন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটনসহ ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতারা।
 
এর আগে অনুষ্ঠানের শুরুতে পায়রা ও বেলুন ওড়ানো এবং জাতীয় সংগীত গাওয়া হয়।

সমাবেশ শেষে একটি বর্ণিল ৠালি বের করা হয়। ৠালিটি শাহবাগ, মৎস্য ভবন, কাকরাইল, বিজয়নগর হয়ে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে গিয়ে শেষ হয়। ৠালি‍ উদ্বোধন করে ওবায়দুল কাদের।

রাত ১২টা ১ মিনিটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হলে কেক কেটে ছাত্রলীগের ৬৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান উদ্বোধন করা হয়। এরপর সকাল আটটায় ধানমণ্ডিতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।  

ক্ষমতাসীন  দলের ছাত্র সংগঠনের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ক্যাম্পাসকে সাজানো হয় বর্ণিল সাজে। শুক্রবার সকাল থেকেই নেতা-কর্মীদের গান-বাদ্য-আর নাচে গোটা ক্যাম্পাসে ছড়িয়ে পড়ে উৎসব আমেজ।

উল্লেখ্য, ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক মুসলিম হলে বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়ে ওঠে এই সংগঠনটি। বাংলাদেশের স্বাধীনতাসহ সব আন্দোলনে অবিস্মরণীয় অবদান রয়েছে ছাত্রলীগের। তবে বর্তমানে বিতর্কিত  কর্মকাণ্ডের জন্য সংগঠনটি ‘আদর্শ বিচ্যুত’ বলে মনে করেন সংগঠনটির অনেক সাবেক নেতা।

নিউজরুম

শেয়ার করুন