সংলাপের উত্তাপ দিয়ে বরফ গলাতে হবে: যোগাযোগমন্ত্রী

0
125
Print Friendly, PDF & Email

সাভার (১ জানুয়ারী) : সংকটে সংলাপের কোনো বিকল্প নেই। সংলাপের উত্তাপ দিয়ে সংকটের বরফ গলাতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি দেশের প্রধান দুটি দলের সংলাপে যোগ দেওয়া সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে বলেন, “রাজনীতিতে বিশেষত গণতান্ত্রিক রাজনীতিতে সংকটে সংলাপের কোনো বিকল্প নেই। সংলাপের উত্তাপ দিয়ে সংকটের বরফ গলাতে হবে।”

মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের দুর্ঘটনাপ্রবণ এলাকা সুঁতিপাড়া, ধলেশ্বরী সেতু ও মানিকগঞ্জের জোঁকায় বাঁক সোজা ও প্রশস্তকরণ কাজ পরিদর্শন ও উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ধামরাইতে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বিপজ্জনক ১১টি বাঁকের প্রশস্তকরণ কাজের উদ্বোধন শেষে যোগাযোগমন্ত্রী বলেন, “১৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ধামরাইয়ের ইসলামপুর থেকে মানিকগঞ্জের জোঁকা পর্যন্ত দুর্ঘটনাপ্রবণ ১১টি বাঁক প্রশস্ত ও সোজা করা হয়েছে। ফলে, সড়কটিতে দুর্ঘটনার সংখ্যা অনেক কমে এসেছে।”

তিনি বলেন, “আগে যেখানে দুর্ঘটনার আশঙ্কায় গোলাপ জল আর আগরবাতি নিয়ে মানুষ আশঙ্কায় থাকতেন, সেখানে এই বাঁকের কারণে দৃশ্যপটই পাল্টে গেছে।”

নতুন বছরে দেশের অন্যান্য মহাসড়কের বিপজ্জনক বাঁক সোজা ও প্রশস্তকরণের মতো এ মহাসড়কটিকেও সোজা ও প্রশস্তকরণ করা হবে বলে জানান যোগাযোগমন্ত্রী।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব বেনজীর আহমেদ, ধামরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হোসেন, সংসদ সদস্য জাহিদ মালেক স্বপন, সড়ক ও জনপথ বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মফিজুল ইসলাম, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শাহাবুদ্দিন আহমেদ খান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালের ১৩ আগস্ট মানিকগঞ্জের জোঁকায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় বেসরকারি টেলিভিশন এটিএন নিউজের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আশফাক মিশুক মুনীর ও আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদসহ ৫ জনের মৃত্যু ও এর  আগের বছরের ৩১ জুন একই সড়কে বিপজ্জনক বাঁকের কারণে প্রাণ হারান মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব রাজিয়া বেগম এবং বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প সংস্থার (বিসিক) চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান।

এসব ঘটনার পর বিপজ্জনক বাঁকগুলো প্রশস্ত করার কাজে হাত দেয় সরকার।

নিউজরুম

শেয়ার করুন