মার্শাল আইয়ুবের সেঞ্চুরিতে ব্যাকফুটে সাউথ

0
189
Print Friendly, PDF & Email

স্পোর্টস ডেস্ক(৩০ডিসেম্বর):জিয়ার বিধ্বংসী সেই ইনিংসের জবাব সেভাবে দিতে না পারলেও মার্শাল আইয়ুব চার দিনের ম্যাচের সলিড ব্যাটিংটা করেই দিয়েছেন সে জবাব। সেঞ্চুরি মার্শালও করেছেন ম্যাচে। তার করা ১২৫ রানের ওপর ভর করে লিড নিয়েও এগিয়ে সেন্ট্রাল জোন। প্রথম ইনিংসে ৯০ রান লিড নিয়ে ইনিংস ডিকেয়ার করেছে তারা। জবাবে খেলতে নেমে গতকাল তৃতীয় দিন শেষে ৩১ রান করেছে এক উইকেট হারিয়ে। ফলে আজ যদি বোলিং ঠিকভাবে করতে পারে মাহমুদুল্লাহরা। তাহলে ম্যাচে হেরেও যেতে পারে সাউথ। ফলে দেখেশুনে ব্যাটিংই করতে হবে সাউথের ব্যাকফুটে থেকে

 

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচ জমে উঠেছে মূলত সাউথের করা ৩৪৩ রানের জবাবে ওয়াল্টন সেন্ট্রালের দায়িত্বপূর্ণ ব্যাটিংয়েই। গতকাল দ্বিতীয় দিনে ২১০/ নিয়ে খেলতে নেমেছিল সেন্ট্রাল। রিয়াদ (২০) মার্শাল আইয়ুব (৬৫) নিয়ে শুরু করে রিয়াদ ৬৬ রান করে আউট হয়ে গেলেও এরপর মার্শাল আইয়ুব সেঞ্চুরিও করে ফেলেন। সেঞ্চুরি করেন তিনি ১৩৮ বলে দুটি ছক্কা ১৩টি বাউন্ডারির সাহায্যে। রিয়াদের সাথে তার পার্টনারশিপ ছিল ১৫০ রানের। রিয়াদ যখন আউট হন তখন তার রান ছিল ৮৩। দেখেশুনে ওই টা রান পূর্ণ করে এরপরও খেলতে থাকেন তিনি। ব্যক্তিগত ১২৫ রানে আউট হন তিনি তুষার ইমরানের বলে। দলীয় রান তখন ৩২৮/৬। ১৯৩ বলে ওই রান করতে দুটি ছক্কা ১৪টি চার হাঁকান তিনি। এরপর মোশাররফ হোসেন রুবেল প্রথম নুরুল হাসানকে সাথে নিয়ে ৩৯ রানের জুটি খেলে ইনিংস লিড নিয়ে পরে ইলিয়াস সানিকে নিয়ে দলকে মজবুত অবস্থানে নিয়ে যান। রুবেল অপরাজিত ছিলেন ৪৩ রানে। ওই রান করতে তিনি ধৈর্যের পরিচয় দিয়ে খেলেন ১৪০টি বল। এর আগে লাঞ্চ বিরতিতে তাদের রান ছিল ৩১৭। অর্থা ১০৭ রান আসে প্রথম সেশনে উইকেট হারিয়ে। দ্বিতীয় সেশনেও কিছুটা কন্ট্রোল করে সাউথ। ফলে ৭৯ রান সংগ্রহে সমর্থ হয় দুই উইকেট হারিয়ে। চাবিরতির পর অবশ্য ইনিংস ডিকেয়ার করে ওয়ালটন সেন্ট্রাল। ৪৩৩/ করে ডিকেয়ার করেছিল তারা। এতেই ওই লিডটা হয়েছিল তাদের। বল হাতে সাউথের সফল ছিলেন সোহাগ গাজী। চার উইকেট নেন তিনি। কিন্তু বিনিময়ে প্রচুর রান দিয়েছেন তিনি। ১৬২ রান দিয়েছেন ৪৬ ওভার বোলিং করে। ছাড়া মুরাদ খান রবিউল ইসলাম নিয়েছেন দুটি করে উইকেট

 

দিনের একেবারে শেষ ভাগে এসে ৯০ রান পিছিয়ে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করতে গিয়ে কিছুটা প্রেসারের মধ্যেই সূচনা করে প্রাইম ব্যাংক সাউথ। অধিনায়ক ইমরুল কায়েস ফজলে রাব্বি সূচনা করলেও জুটি স্থায়ী হয়নি। মাহমুদুুল্লাহর বলে আউট হয়ে যান ইমরুল ১২ রান করে। অবশ্য খেলার নির্ধারিত সময়ের আগেই কুয়াশার জন্য বন্ধ হয় দিনের খেলা। ফলে দিন শেষে স্কোর দাঁড়ায় তাদের ৩১/১। রাব্বি ১২ এনামুল বিজয় রান নিয়ে আছেন ক্রিজে। আজ শেষ দিনে তাদের ব্যাট পানেই তাকিয়ে সাউথ। কারণ দেখেশুনে উইকেট সেভ করে না খেলতে পারলে পরাজয়েরও আশঙ্কা আছে। কারণ দ্বিতীয় ইনিংসে এখনো পিছিয়ে তারা ৫৯ রানে

 

সংক্ষিপ্ত স্কোর : প্রাইম ব্যাংক সাউথ প্রথম ইনিংস: ৩৪৩ দ্বিতীয় ইনিংস : ৩১/

 

ওয়ালটন সেন্ট্রাল প্রথম ইনিংস : ৪৩৩/ ডিকে. মার্শাল আইয়ুব ১২৫, শামছুর রহমান ৮৪, রিয়াদ ৬৬, মোশাররফ ৪৩ অপ:, সোহাগ গাজী /১৬২

 

 

 

নিউজরুম

 

শেয়ার করুন