২০১৪ সালে পরিবর্তন দিয়ে মুক্তির প্রক্রিয়া শুরু হবে: ড. কামাল

0
182
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা (২৯ ডিসেম্বর) : চলমান রাজনৈতিক টানাপোড়েন থেকে দেশ ২০১৪ সালে মুক্তি পাবে বলেই মনে করছেন বিশিষ্ট আইনজীবী সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল হোসেন।

তিনি বলেছেন, সামনে আরও ১২ মাস সময় আছে এই সময়ের মধ্যেই এ নিয়ে কাজ করা হবে। সারাদেশ থেকে ভালো মানুষগুলোকে খুঁজে বের করতে হবে।

মানুষ এখন পরিবর্তন চায় বলে জানিয়ে তিনি বলেন, ২০১৪ সালের পর প্রধানমন্ত্রীসহ অনেককেই দেশের মানুষ আর ক্ষমতায় দেখতে চাইবে না।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম আয়োজিত ‘গণতন্ত্র ও চলমান রাজনীতি’ শীর্ষক অনলাইন সংলাপে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. কামাল বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে বুঝতে হবে তিনি গণতন্ত্রের সেবক, জনগণের সেবক। তিনি যদি সেটা বুঝতে না পারেন তা হলে তখন সেটা আমাদের বুঝানোর দায়িত্ব নিতে হবে।

প্রয়োজনে মুক্তিযুদ্ধের আগের মতো আবারও জনগণের ঘরে ঘরে গিয়ে জনমত গঠন করা হবে বলেও ঘোষণা দেন ড. কামাল।

তিনি বলেন, ষাটের দশকের তরুণদের কাছে পশ্চিম পাকিস্তানের শাসক গোষ্ঠীর আচরণ গা-সওয়া হয়নি বলেই তারা স্বাধীনতা যুদ্ধ করেছিলেন। তাই এখন আমাদের গা-সওয়া হলে চলবে না। আমাদেরও রুখে দাঁড়াতে হবে।

রাজনীতিতে পুলিশ বাহিনীকে নিকৃষ্টভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে মত দিয়ে ড. কামাল বলেন, পুলিশকে রুগ্ন রাজনীতির নিয়ন্ত্রণ থেকে মুক্ত করতে হবে। তাদের জনগণের বন্ধু করতে হবে।

নিরপেক্ষ, দলীয়করণ মুক্ত কোনো দল আমরা দেখতে পাইনি।

সুপ্রিমকোর্ট আরও দুটি নির্বাচন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে করার সুযোগ রেখেছিলেন, নির্দেশনা দিয়েছিলেন কিন্তু সে নির্দেশনা না মেনেই সরকার মাত্র ১০ মিনিটে একটি সাংবিধানিক ব্যবস্থা বাতিল করেছে। যা হতে পারে না, মত দেন ড. কামাল।

শেয়ার করুন