২৬ ডিসেম্বর খালেদা জিয়া ৫টি পথসভা করবেন

0
168
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা (২৫ ডিসেম্বর) : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ২৬ ডিসেম্বরের গণসংযোগ কর্মসূচিতে ৫টি পথসভা করবেন। এ স্থানগুলো হলো- গাবতলী, কাওরানবাজার, যাত্রাবাড়ী, সবুজবাগ ও বাড্ডা। এর আগে এ ৫টিসহ ধোলাইখালে পথসভা করার সিদ্ধান্ত ছিল।

সোমবার  রাতে ৬টির পরিবর্তে ৫টি পথসভা করার সিদ্ধান্ত হয় বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।  

 

নতুন সিদ্ধান্ত মোতাবেক বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় খালেদা জিয়া তার গুলশানের বাসা থেকে গাবতলীর উদ্দেশে রওয়ানা হবেন। ১১টায় গাবতলীতে ১ম পথসভা করবেন। এরপর দুপুর ১২টায় কাওরানবাজারে ২য়, বেলা ১টায় যাত্রাবাড়ীতে ৩য়, বেলা ২টায় সবুজবাগে ৪র্থ এবং বিকেল ৩টায় বাড্ডায় শেষ ও ৫ম পথসভা করবেন।

এদিকে খালেদা জিয়ার জনসংযোগ কর্মসূচিতে সরকারের সহযোগিতা চেয়েছে দলটি।

সোমবার দুপুরে ১৮ দলীয় জোটের মহাসচিবদের বৈঠক শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে  বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম তার দলের পক্ষে এ সহযোগিতা চান।

এসময় তিনি বলেন, “রাজধানীতে বুধবার গণসংযোগ করবে ১৮ দল। এ কর্মসূচিতে খালেদা জিয়া গাবতলী, কারওয়ান বাজার, ধোলাইখাল, যাত্রাবাড়ী, সবুজবাগ ও বাড্ডায় ৫টি পথসভায় বক্তব্য রাখবেন।”

সকাল ১১টায় গাবতলী থেকে খালেদা জিয়া এই গণসংযোগ শুরু করবেন বলে জানান তরিকুল ইসলাম।

তিনি আরো জানান, নির্দলীয় সরকারের দাবিতে জনমত গড়ার লক্ষ্যে ১৮ দলীয় জোট ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে জোটনেত্রী খালেদা জিয়া রাজধানী ঢাকায় এবং অন্য ৭টি মহানগরে জোটের শীর্ষ নেতারা গণসংযোগ করবেন।

তরিকুল ইসলাম বলেন, “আমাদের এই কর্মসূচি হবে সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ। এরই মধ্যে ৬টি পথসভার অনুমতি পেয়েছি। আমরা এই শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি সফল করতে সরকারের সর্বাত্মক সহযোগিতা চাই।”

দেশবাসীকে এ কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে নির্দলীয় সরকারের দাবি মানতে সরকারকে বাধ্য করানোর আহবান জানান তরিকুল।

২৬ ডিসেম্বরের কর্মসূচি শেষে জোট নেতাদের সঙ্গে খালেদা জিয়ার বৈঠকে পরবর্তী কর্মসূচি ঠিক করা হবে বলেও জানান তরিকুল।

এর আগে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ১৮ দলীয় জোটের মহাসচিবদের বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন তরিকুল ইসলাম। বৈঠকে বুধবারের (২৬ ডিসেম্বর) গণসংযোগ কর্মসূচির প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা হয়।

এ সময় বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, ঢাকা মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আবদুস সালাম, জামায়াতের কর্মপরিষদ সদস্য সৈয়দ আবদুল্লাহ মো. তাদের, মহানগর নেতা শফিকুল ইসলাম মাসুদ, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির (বিজেপি) মহাসচিব শামীম আল মামুন, ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব আবদুল লতিফ নেজামী, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির মহাসচিব রেদোয়ান আহমেদ, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির মহাসচিব  আলমগীর মজুমদার, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মহাসচিব ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, কল্যাণ পার্টির মহাসচিব আবদুল মালেক চৌধুরী, মুসলিম লীগের মহাসচিব আতিকুল ইসলাম, ন্যাপ মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভুঁইয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজরুম

শেয়ার করুন