চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে আগুনে পুড়ে ২ জনের মৃত্যু

0
44
Print Friendly, PDF & Email

চট্টগ্রাম  (২৪ ডিসেম্বর)চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার ৯ নম্বর গড়দুয়ারা ইউনিয়নের লোহারপুল এলাকায় আগুনে পুড়ে  ২ কিশোর মারা গেছে। তাৎক্ষণিকভাবে এদের পরিচয় জানা যায়নি।

রোববার রাত ১০টা ১৫ মিনিটে স্থানীয় হারুনের চায়ের দোকানের চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের চট্টগ্রামের ডেপুটি অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর (ডিএডি) মো. জসিম উদ্দীন বাংলানিউজকে জানান, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে  ফায়ার সার্ভিসের হাটহাজারী স্টেশন থেকে একটি গাড়ি ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়। ১ ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

অজ্ঞাত পরিচয়ের ২ জনের অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি জানান, আগুনে একটি করে মনিহারি, আসবাব, লাকড়ি, খাবার ও চায়ের দোকান পুড়ে গেছে। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ফায়ার সার্ভিসের হিসাবে ৫ লাখ টাকার ক্ষতি ও ১৫ লাখ টাকার সম্পদ উদ্ধার করা হয়েছে।

ডিএডি জসিম উদ্দীন জানান, ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা চায়ের দোকান থেকে অগ্নিদগ্ধ হয়ে নিহত অজ্ঞাত পরিচয়ের এক শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করেছে। নিহতের আনুমানিক বয়স ১৫ থেকে ১৬ হতে পারে। এছাড়া স্থানীয় লোকজন আরেক গুরুতর আহত আরেক কিশোর শ্রমিককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যায়। 

কর্মচারীদের তালাবদ্ধ করে বাড়ি যায় চা-দোকানি হারুণ

স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ জানিয়েছে, চা-দোকানি হারুণ কর্মচারীদের তালাবদ্ধ করে বাড়ি চলে যাওয়ায় আগুন লাগার পর তারা বের হতে পারেনি। এতে অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা পড়েন অজ্ঞাত পরিচয়ের দুই কর্মচারী।

হাটহাজারী থানার উপ-পরিদর্শক ইতু চাকমা  জানান, চা-দোকানি হারুণ পলাতক থাকায় নিহত কর্মচারীদের নাম-পরিচয় পাওয়া যাচ্ছে না। বাজারের লোকজনও এ ব্যাপারে কিছু জানাতে পারছেন না। 

ভেতরে কর্মচারীদের রেখে দোকান তালাবদ্ধ করায় প্রাণহানি ঘটেছে উল্লেখ করে ইতু চাকমা বলেন, ‘প্রাথমিক তদন্তে বিষয়টি ধরা পড়েছে। দোকানের কর্মচারীরা নতুন হওয়ায় পালিয়ে যেতে পারে এমন আশঙ্কা থেকে হারুণ তাদের তালাবদ্ধ করে গেছেন।’

নিউজরুম

শেয়ার করুন