কড়া নিরাপত্তায়ও প্রাণ গেল পাক মন্ত্রীর!

0
126
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা (২৩ ডিসেম্বর) সব ধরনের নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া সত্ত্বেও পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের জ্যেষ্ঠ মন্ত্রী বশির আহমেদ বিলাওরের ওপর আত্মঘাতী হামলার ঘটনা ঘটেছে। সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে পাকিস্তানের ‘দ্য ডন’ পত্রিকার অনলাইন আজ রোববার এ তথ্য জানিয়েছে। ফলে পাকিস্তানে নিরাপত্তাব্যবস্থার বিষয়টি আবারও প্রশ্নের মুখে পড়েছে।
পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের রাজধানী পেশোয়ারের কিসাখাওয়ানি বাজারের কাছে আওয়ামী ন্যাশনাল পার্টির (এএনপি) এক সভায় গতকাল আত্মঘাতী হামলা চালানো হয়। এতে প্রদেশের জ্যেষ্ঠ মন্ত্রী বশির আহমেদ বিলাওরসহ আটজন নিহত ও ১৭ জন আহত হন।
হামলায় বশির আহমেদ বিলাওর গুরুতর আহত হলে হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিত্সকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে মন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারীও আছেন। আহত ব্যক্তিদের মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা গুরুতর।
পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন তেহরিক-ই-তালেবান এ হামলার দায় স্বীকার করেছে।
এ ঘটনায় পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা নিন্দা ও শোক জানিয়েছেন। দেশটির প্রধানমন্ত্রী রাজা পারভেজ আশরাফ আজ রোববার পাকিস্তানে এক দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছেন। এ দিন জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত থাকবে।
পেশোয়ারের জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তা ইমরান শহীদ দাবি করেছেন, খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের রাজধানী পেশোয়ারের কিসাখাওয়ানি বাজারের কাছে আওয়ামী ন্যাশনাল পার্টির (এএনপি) রাজনৈতিক সভাকে কেন্দ্র করে কড়া নিরাপত্তাব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছিল। কিন্তু নিরাপত্তাব্যবস্থার ফাঁক গলে আত্মঘাতী হামলাকারী এ ঘটনা ঘটাতে সক্ষম হন।
নিরাপত্তা কর্মকর্তারা বলছেন, প্রায় ছয় কিলোগ্রাম বিস্ফোরক দিয়ে এ হামলা চালানো হয়েছে। ঘটনাস্থলে হামলাকারীর মাথা ও পা পাওয়া গেছে।
এদিকে দেশটির তথ্যমন্ত্রী কামার জামান কাইরা গতকাল শনিবার দেশবাসীর প্রতি নতুন উদ্যমে সন্ত্রাস মোকাবিলার আহ্বান জানিয়েছেন।

নিউজরুম

শেয়ার করুন