খালেদা দেশকে গৃহযুদ্ধের দিকে ঠেলে দিচ্ছে: সৈয়দ আশরাফ

0
430
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা  (১৪ ডিসেম্বর) : খালেদা জিয়া যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচানোর জন্য দেশকে আরো গণহত্যাসহ গৃহযুদ্ধের দিকে ঠেলে দিচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।

শুক্রবার সকাল ৯টায় মোহাম্মদপুর রায়ের বাজার বধ্যভূমিতে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের শ্রদ্ধা জানাতে এসে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমরা খালেদার রক্তচক্ষুকে ভয় পাই না। বিজয়ের মাসেই যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের রায় শুরু হবে। ফেব্রুয়ারি মাসে আরো কিছু রায় আসবে।

মন্ত্রী আরো বলেন, আইনি প্রক্রিয়ার মধ্যদিয়ে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবে। কোনো শক্তিই তাদের বাঁচাতে পারবে না। খালেদার শক্তি নেই তাদের বাংলার মাটি থেকে রক্ষা করার।

তিনি বলেন, আমরা যদি দূর্বল হতাম তাহলে তারা হয়তো যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে পারতো। দেশের জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এই বিচার কাজ শেষ করা হবে বলে তিনি জানান।
 
তিনি বলেন, বিএনপি- জামায়াতের যেমন তফাৎ নেই তেমনি খালেদা-নিজামীর কোনো তফাৎ নেই। বিএনপি তত্বাবধায়ক সরকারের জন্য হরতাল দিচ্ছে না, হরতাল দিচ্ছে যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচানোর জন্য।

বিচার প্রক্রিয়া শেষের দিকে, সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হয়েছে। আর বিজয়ের মাসেই তাদের রায় হবে।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি-জামায়াত যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচানোর জন্য চোরাগোপ্তা হামলা অব্যাহত রেখেছে।

আজকে একদিকে যেমন বিচার চলছে অপরদিকে ষড়যন্ত্রও থেমে নেই। আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ ও সতর্ক থাকতে হবে কারণ এই বিচারের রায় যতো এগিয়ে আসছে তারা দেশকে ততোই বিশৃংখলার দিকে ঠেলে দিচ্ছে। দেশকে নৈরাজ্যের দিকে ঠেলে দেওয়ার জন্য বিএনপি-জামায়াত বিভিন্ন ভাবে অপশক্তি সঞ্চয় করছে।

বঙ্গবন্ধুর বিচার যেমন কেউ ঠেকাতে পারেনি তেমনিভাবে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের রায়কেও কেউ ঠেকাতে পারবেনা বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী অ্যাড. জাহাঙ্গীর কবির নানক, খাদ্যমন্ত্রী আব্দুল রাজ্জাক, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমেদ হোসেন প্রমুখ।

নিউজরুম

শেয়ার করুন