বিচারকের কথিত কথোপকথন প্রকাশে নিষেধাজ্ঞা

0
434
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা, (ডিসেম্বর ১৩) : স্কাইপের মাধ্যমে প্রবাসী এক আইন বিশেষজ্ঞের সঙ্গে বিচারপতি নিজামুল হকের কথিত কথোপকথনের ভিত্তিতে কোনো ধরনের প্রতিবেদন বা শ্রুতিলিখন প্রকাশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২।

বৃস্পতিবার বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে পুনগর্ঠিত এই ট্রাইব্যুনালের প্রথম কার্যদিবসেই এ আদেশ এলো।

ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর রানা দাশগুপ্ত দৈনিক আমার দেশ ও সংগ্রাম এ বিচারপতি নিজামুল হক ও প্রবাসী আইন বিশেষজ্ঞ আহমেদ জিয়াউদ্দিনের কথিত কথোপকথনের অনুলিপি ও প্রতিবেদন প্রকাশের বিষয়টি উল্লেখ করে এ বিষয়ে আদালতের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

তিনি বলেন, ট্রাইব্যুনালের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন এবং বিচার-প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত করতেই সংবাদপত্র দুটি ধারাবাহিকভাবে প্রতিবেদন প্রকাশ করছে।

আদেশে ট্রাইব্যুনাল বলে, বাংলাদেশের কোনো ধরনের গণমাধ্যমে আর ওই বিষয়ে প্রতিবেদন বা কথপোকথনের শ্রুতিলিখন বা অন্যকিছু প্রকাশ করা যাবে না। এই আদেশের অনুলিপি দুই পত্রিকার সম্পাদক এবং বিটিআরসি ও তথ্য মন্ত্রণালয়েও পাঠাতে হবে।

এ দুটি পত্রিকার মধ্যে আমার দেশের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমান সাবেক বিএনপি সরকারের সময় জ্বালানি উপদেষ্টা ছিলেন। আর দৈনিক সংগ্রাম জামায়াতে ইসলামীর মুখপত্র, যে দলটির শীর্ষ নয় নেতার বিচার চলছে যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালে।

ওই কথিত কথোপকথন পত্রিকায় প্রকাশের পর সৃষ্ট বিতর্কের মুখে মঙ্গলবার পদত্যাগপত্র জমা দেন বিচারপতি নিজামুল। তার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করে বৃহস্পতিবার ট্রাইব্যুনাল পুনর্গঠনের প্রজ্ঞাপন জারি করে আইন মন্ত্রণালয়।এতে ট্রাইব্যুনাল-১ এ নিজামুল হকের জায়গায় দায়িত্ব পান দ্বিতীয় ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি এটিএম ফজলে কবীর। আর তার জায়গায় দায়িত্ব নেন এই ট্রাইব্যুনালের সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করে আসা বিচারপতি ওবায়দুল হাসান।

ট্রাইব্যুনাল-২ এর নতুন সদস্য বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়াও নিষেধাজ্ঞা জারির আদেশের সময় এজলাসে ছিলেন।

নিউজরুম

শেয়ার করুন